এবার মুখ খুললেন স্বয়ং স্মিথ


ভারতের বিপক্ষে চলমান সিরিজের তৃতীয় টেস্ট ম্যাচে পিচের মাঝে জুতা দিয়ে ঘষাঘষি করে এখন ক্রিকেটপাড়ায় সমালোচনার প্রধান বিষয় যেন স্টিভ স্মিথ। এই ঘটনা নিয়ে তিনি নিজেও মুখ খুলেছেন। জানিয়েছেন, অভ্যাসের বশেই এমনটা করেছেন। অধিনায়ক টিম পেইনও একই কথা বলেছিলেন।

ক্রিজে পা মাড়িয়ে নতুন বিতর্কে স্মিথ, টুইটারে নিন্দার ঝড়

ভারতীয় ব্যাটসম্যান রিশাভ পান্ট ব্যাটিং করার সময়ে স্মিথ ক্রিজে জুতা ঘষে ইচ্ছাকৃতভাবে পান্টের ব্যাটিং গার্ড মার্ক মুছে দিয়েছেন এমন শোরগোল উঠেছিল। এই খবর ফলাও করে প্রচার করে ভারতীয় গণমাধ্যম। তারা দাবি করে, এহেন কাজ করার ফলে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) দল রাজস্থান রয়্যালসও স্মিথের সাথে চুক্তি বাতিল করতে যাচ্ছে।

Also Read – দীর্ঘায়িত হলো মঈনের আইসোলেশন

তবে অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক পেইন জানান, স্মিথ টেস্ট ম্যাচে প্রতিদিনই পাঁচ থেকে ছয়বার এরকম করে থাকেন। বিভিন্ন রীতিনীতি মানার মতোই তার কাছে এই কাজটি। এরকম একটি অভ্যাসকে অন্যদিকে টেনে নিয়ে প্রচার করায় স্মিথ খুবই বিরক্ত।

স্মিথ এই ব্যাপারে বলেছেন, ‘এটা আমি সব ম্যাচেই করি, আমাদের বোলাররা কোথায় বল করছে, ব্যাটসম্যানরা কীভাবে আমাদের বোলারদের খেলছে। এই অভ্যাসের বসেই আমি সবসময় পিচের মাঝে দাগ কাটি। এটা খুবই লজ্জাজনক যে এরকম একটা ইস্যু নিয়ে আলোচনা তুলে, ভারত কত ভালো করে ব্যাটিং করে ম্যাচ বাঁচাল সেই আলোচনাকে ঢেকে দেওয়া হয়েছে।’

এর আগে অধিনায়ক টিম পেইন বলেছিলেন, ‘যদি আপনি স্মিথের টেস্ট খেলা দেখে থাকেন তাহলে খেয়াল করবেন সে এই কাজ প্রতি ম্যাচেই করে, দিনে পাঁচ থেকে ছয় বার। সে সবসময়ই ব্যাটিং ক্রিজে এভাবে দাঁড়ায়। আমরা সবাই জানি, স্মিথের এমন কিছু অভ্যাস আছে এবং তার ভেতরেই একটা হলো উইকেটের মাঝে গিয়ে এভাবে দাগ কাটা।’

পেইন আরও বলেন, ‘সে হঠাৎ করেই গার্ড পরিবর্তন করে দেয়নি। আমি ধরে নিলাম সে তাই করেছিল কিন্তু যদি করতই তাহলে ভারতীয় ক্রিকেটাররাই সেটা ধরিয়ে দিতে এবং তখনই এই নিয়ে কথা হতো। এই এমনই একটা অভ্যাস যেটা শেফিল্ড শিল্ডের ম্যাচেও তার সাথে খেলার সময় আমি স্টিভকে বহুবার করতে দেখেছি। যখন সে মাঠে থাকে তখন সে যেখানে ব্যাটিং করে সেখানে যেতে এবং কীভাবে ব্যাটিং করবে তা দেখতে পছন্দ করে।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *