পার্লামেন্টে ট্রাম্প-সমর্থকদের তাণ্ডব, নিহত ১, কারফিউ জারি

এদিকে ট্রাম্প এক ভিডিও-বার্তায় বলেন, ‘আমি আপনাদের বেদনা বুঝি, আমি জানি আপনারা কষ্ট পেয়েছেন। তবে আপনাদের এখন বাড়ি ফিরতে হবে’

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে পার্লামেন্ট ভবনে (ক্যাপিটল বিল্ডিং) ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের হামলার ঘটনায় এক নারী নিহত হয়েছে। ট্রাম্প-সমর্থকদের বিক্ষোভ, ভাঙচুর ও গোলাগুলির মধ্যে ওই নারীর মৃত্যু হয়। পরবর্তীতে পার্লামেন্ট ভবন অবরুদ্ধ করতে বাধ্য হয় পুলিশ।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, অধিবেশন চলাকালে হঠাৎ করেই ট্রাম্প সমর্থকরা সেখানে তাণ্ডব শুরু করে। ভাঙচুরের পাশাপাশি সেখানে গোলাগুলির ঘটনাও ঘটে, এতে ওই নারী গুলিবিদ্ধ হয়।

বিবিসি জানায়, প্রতিনিধি পরিষদের সভাকক্ষের প্রবেশদ্বারে অস্ত্র তাক করার দৃশ্য দেখা গিয়েছে। কাঁদানে গ্যাসও ব্যবহার করা হয়েছে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ফক্স নিউজ জানিয়েছে অ্যাশলি ব্যাবিট নামের ওই নারী সান দিয়াগোর বাসিন্দা। তিনি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কট্টর সমর্থক ছিলো।

এছাড়া ভবনের ভেতরে বিক্ষোভকারীদের “আমরা ট্রাম্পকে ভালোবাসি” স্লোগান দিতেদিতে মিছিল করতে দেখা গেছে। একজন ট্রাম্প-সমর্থকের ছবি প্রকাশ করা হয়েছে যেখানে তিনি সিনেটের সভাপতির আসনে বসে আছে।

যেভাবে শুরু হয় সহিংসতা

বুধবার (৬ জানুয়ারি) মার্কিন আইনপ্রণেতারা যখন নভেম্বরের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে জো বাইডেনের জয় আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমোদন করার জন্য অধিবেশনে বসেছিলেন, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের শতশত সমর্থক যুক্তরাষ্ট্রের আইনসভা কংগ্রেসের ভবন ক্যাপিটলে ঢুকে পড়ে।

কয়েকঘণ্টা ভবন কার্যত দখল করে রাখার পর বিক্ষোভকারীরা ধীরেধীরে ক্যাপিটল প্রাঙ্গণ ছেড়ে বাইরে চলে যেতে থাকে।

ওয়াশিংটনে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা থেকে ১২ ঘণ্টার কারফিউ ঘোষণা করা হয়েছে, তবে সান্ধ্য আইন শুরু হওয়ার পরও বিক্ষোভকারীদের রাজপথে দেখা গিয়েছে। দুপুরের পরই আমেরিকার রাজধানীতে নাটকীয় দৃশ্যে দেখা যায়, শতশত বিক্ষোভকারী ভবনটিতে ঢুকে পড়ছে আর পুলিশ কংগ্রেস সদস্যদের নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিচ্ছে।

কয়েক ঘণ্টা ভবন কার্যত দখল করে রাখার পর বিক্ষোভকারীরা ধীরেধীরে ক্যাপিটল প্রাঙ্গণ ছেড়ে বাইরে চলে যেতে থাকে।এই শোরগোলের মধ্যে বাইডেনের জয় অনুমোদন করার জন্য কংগ্রেস অধিবেশন স্থগিত করা হয়।

হামলা চলাকালে ভবনের ভেতরে আগ্নেয়াস্ত্র তাক করার খবর পাওয়া গিয়েছে এবং অন্তত একজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে বলে জানা যায়। পরে গুলিবিদ্ধ হয়ে একজন নারী মারা গিয়েছে বলে নিশ্চিত করা হয়।

এদিকে, ডোনাল্ড ট্রাম্প এক ভিডিও-বার্তায় তার সমর্থকদের বাড়ি ফেরার অনুরোধ করেন। তবে তিনি আবারও দাবি করেন, জো বাইডেনের ডেমোক্র্যাট দল নির্বাচনে কারচুপি করেছে। যদিও তিনি কোনো প্রমাণ দিতে পারেননি।

সমর্থকদের উদ্দেশে ট্রাম্প বলেন, “আমি আপনাদের বেদনা বুঝি, আমি জানি আপনারা কষ্ট পেয়েছেন। আপনাদের এখন বাড়ি ফিরতে হবে। আমাদের শান্তি দরকার, আমরা চাই না কেউ আহত হোক।”

অন্যদিকে জো বাইডেন বলেন, “এই বিক্ষোভ একটি বিদ্রোহের সমতুল্য এবং এখনই তার অবসান হওয়া উচিৎ। আমাদের গণতন্ত্র এখন এক নজিরবিহীন আক্রমণের মুখে।”

সম্পূর্ণ সংবাদ টি পড়ুন

সূত্রঃ ঢাকা ট্রিবিউন

Source Link

2 Comments

  1. vreyro linomit
    January 13, 2021 - 4:28 pm

    Wow! Thank you! I continually wanted to write on my blog something like that. Can I take a part of your post to my website?

    Reply
    • TECHNICS
      January 14, 2021 - 12:39 pm

      Ok. Sure

      Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *