ব্রণমুক্ত ত্বকের জন্য আদর্শ ১০টি খাবার


টিনএজ থেকে শুরু করে বিভিন্ন বয়সে ব্রণের সমস্যা হয়নি এমন কাউকে খুঁজে পাওয়াটা কঠিন। ব্রণ যেমন অস্বস্তিকর ঠিক তেমনি ত্বকের শ্রী নষ্ট করে দেয়। বাইরের ধুলাবালির কারণে এবং ডায়েটারি খাবারের অভাবে মুখে ব্রণের মতো সমস্যা দেখা দেয়। কিছু খাবার আছে যেগুলো নিয়মিত খেলে ত্বককে ব্রণ হতে দূরে রাখবে। যেনে নিন এমন ১০ টি আদর্শ খাবার যা ত্বকের ব্রণ দূর করতে সাহায্য করবে।

১. লেমন জুস দেহের ভেতরে অ্যাসিডের উপাদান কমাতে সাহায্য করে। লিভার পরিষ্কার রাখার পাশাপাশি এনজাইম উৎপন্ন করে রক্তে বিষাক্ত উপাদান দূর করে। এটি ত্বকে খোচপাচড়া হতে দেয় না বরং ত্বককে করে উজ্জ্বল এবং সতেজ।

২. নিয়মিত আখরোট খেলে ত্বক মসৃণ ও কোমল হতে সাহায্য করবে।

৩.  ডায়েটারি সেলেনিয়াম বাদাম এবং বীজ জাতীয় খাবার থেকে পাওয়া যায়। গবেষণায় দেখা গেছে, সূর্যের ক্ষতি থেকে ত্বককে রক্ষা করে এটি বেশ কার্যকরী।

৪. আপেলে প্রচুর পেকটিন উপাদান রয়েছে। যা ব্রণের শত্রু।

৫. তরমুজ ত্বকের দাগ দূর করতে খুবই কার্যকরী। ভিটামিন এ, বি এবং সি সমৃদ্ধ এই ফল ত্বককে রাখে সতেজ, উজ্জ্বল এবং আর্দ্র। এটি ত্বকের ব্রণ প্রতিরোধ এবং ব্রণের দাগ দূর করতে বেশ কার্যকরী।

৬. স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ত্বক পাওয়ার সবচেয়ে ভালো উপায় হচ্ছে সুষম খাবার খাওয়া। কম চর্বিযুক্ত খাবারের পাশাপাশি ভিটামিন এ স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ত্বকের জন্য গুরুত্বপূর্ণ উপাদান।

৭. রাসবেরি জাতীয় ফল ভিটামিন, অন্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান এবং আঁশে ভরপুর। এগুলোতে সমৃদ্ধ পাইটোক্যামিকেল উপাদান রয়েছে যা ত্বককে রাখে সুরক্ষিত।

৮. ত্বক সুস্থ রাখতে প্রচুর পানি পান করতে হবে। দেহের অভ্যন্তরে অক্সিজেন এবং পুষ্টি সরবরাহ করে পানি। এটি ত্বককে রাখে কোমল রাখার পাশাপাশি ব্রণ প্রতিরোধ করে।

৯. অলিভ অয়েল লোশন ত্বকের ভেতরে প্রবেশ করে কিন্তু লোমকূপ বন্ধ করে না। ত্বকের শ্বাসপ্রশ্বাসে সহায়তা করে ব্রণ হতে দেয় না।

১০. টক দইয়ে অ্যান্টিফাঙ্গাল এবং অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুণ রয়েছে। এই উপাদানগুলো ত্বক পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে।

 

 





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *