স্পিনারদের ব্যর্থতাকেই দায়ী করছেন রিয়াদ


স্পিনারদের ব্যর্থতাকেই দায়ী করছেন রিয়াদ

সাকিব আল হাসানও যেদিন ‘অর্ডিনারি’ বোলার হয়ে যান, স্পিনারদের সেই দিনটা খারাপ যাওয়াই স্বাভাবিক। ফরচুন খুলনার তারকা অলরাউন্ডার বৃহস্পতিবার (১০ ডিসেম্বর) খরুচে বোলিংয়ের গ্লানি জড়িয়েছেন নামের পাশে। ম্লান ছিলেন অন্য স্পিনাররাও। বেক্সিমকো ঢাকার কাছে খুলনার পরাজয়ের জন্য স্পিনারদের এই ব্যর্থতাকেই দায়ী করছেন বিজিত দলপতি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। 

স্পিনারদের ব্যর্থতাকেই দায়ী করছেন রিয়াদ

ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে সাকিব বোলিং থেকে ২৬ রান সংগ্রহ করেন নাঈম শেখ। একই ইনিংসে আকবর আলীর তোপের মুখে পড়েছিলেন নাজমুল ইসলাম অপু, এক ওভারে তিনি দেন ২৪ রান; সাকিবের মতই হজম করেন ৪টি ছক্কা। রিয়াদের আক্ষেপ এখানেই- ঢাকার স্পিনাররা স্পিন বান্ধব উইকেটের সুবিধা কাজে লাগাতে পারলেও খুলনার স্পিনারদের বোলিং ফিগার এমন খরুচে!

Also Read – দাপুটে জয়ে প্রতিশোধ নিলো ঢাকা; রবির ৫ উইকেট

ম্যাচ শেষে রিয়াদ বলেন, ‘শেষদিকে ওদের চেপে ধরতে পারলেও প্রথম তিন ওভারে আমরা ভালো বল করতে পারিনি। স্পিনাররা কন্ডিশনের সুবিধা অনুযায়ী বল করতে পারেনি। শুরুটা ভালো করতে পারলে শেষদিকে ছন্দ ধরে রাখা যেত।’

এই জয়ে ঢাকার সামনে সুযোগ তৈরি হয়েছে খুলনাকে টপকানোর। মুশফিকুর রহিমের দলকে কৃতিত্ব দিতে অবশ্য কার্পণ্য করেননি রিয়াদ, ‘ঢাকাকে কৃতিত্ব দিতে হবে। তারা যেভাবে স্পিনারদের কাজে লাগিয়েছে, কন্ডিশনকে কাজে লাগিয়েছে, তাদেরই কৃতিত্ব দিতে হয়। আমাদের কন্ডিশনের সুবিধা কাজে লাগাতে হবে, এসব বিষয় শুধরাতে হবে।’ 

ব্যাটিং নিয়েও অসন্তোষ ঝরেছে রিয়াদের কণ্ঠে। তবে ফাস্ট বোলাররা খুলনাকে ম্যাচে ফিরিয়ে আনায় ভুলে যাওয়ার মত ম্যাচেও কিছুটা স্বস্তি ছিল রিয়াদের চোখেমুখে। তা ফুটে উঠল রিয়াদের কণ্ঠেও, ‘১৮০ রান তাড়া করতে হলে প্রথম বল থেকেই দাপট দেখিয়ে খেলতে হবে। প্রথম তিন ওভারেই আমরা দুটি উইকেট হারিয়ে ফেলেছি। ইতিবাচক হিসেবে দেখতে গেলে ডেথ ওভারের বোলিংয়ের কথা বলতে হবে। ফাস্ট বোলাররা সত্যিই দারুণ বল করেছে। কন্ডিশন ব্যবহার করে স্লো বল করেছে।’ 

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: