latest

‘যারা বাঙালি সংস্কৃতির বাইরে তারা নীতিনির্ধারক হতে পারে না’


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেছেন, দেশের মানুষ নিজস্ব সংস্কৃতি পালন করেই একটি সুখি-সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ চায়। গুটিকয়েক মানুষ বাঙালি সংস্কৃতির বাইরে থাকতে পারে। কিন্তু যারা বাঙালি সংস্কৃতির বাইরে তারা কখনই দেশের নীতিনির্ধারক হতে পারে না।

সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন। এসময় শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি সম্মান জানিয়ে দলের পক্ষ থেকে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

বিরোধী দলীয় উপনেতা বলেন, ‘সাম্প্রদায়িকতা বাঙালি জাতির ঐতিহ্য নয়। আমরা ধর্মপ্রাণ, ধর্মকে ভালোবাসি। কিন্তু ধর্মের গোড়ামিকে পছন্দ করি না। বাংলাদেশের হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ও মুসলমান নিজেদের ধর্ম ও সংস্কৃতি পালন করছে। আর বাঙালি জাতির সংস্কৃতি সবাই সমন্বিত ভাবে তুলে ধরেছে। যারা আমাদের সংস্কৃতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে তা বাস্তবসম্মত নয়, জনগণের মনের কথা নয়।’

শোষণ, নির্যাতন, বৈষম্য মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার যে চেতনায় দেশের সূর্যসন্তানরা জীবন দিয়েছেন, তা অর্জনের জন্য আগামী দিনে আরও সংগ্রাম করতে হবে জানিয়ে জি এম কাদের বলেন, ‘মূর্তি বানানো, ছবি তোলা, গান, নাটক বা হিজাব না পড়া তা স্বাভাবিকভাবেই আমাদের সংস্কৃতি এবং জীবনযাত্রার সঙ্গে চলমান। কিন্তু এর বাইরে কেউ কিছু চাপিয়ে দিতে চাইলে তা জনগণ কখনই গ্রহণ করেনি। এমন ঘটনাগুলো বিচ্ছিন্ন কোন ঘটনা হতে পারে, আবার সমন্বিত কোন ষড়যন্ত্রের ফসলও হতে পারে। আমরা ষড়যন্ত্রের রাজনীতিতে বিশ্বাস করিনা, দেশের মানুষকে সব ষড়যন্ত্র থেকে মুক্তি দিতেই আমরা রাজনীতি করি। কোন ষড়যন্ত্র থাকলে তা বের করে সমাধানের দায়িত্ব সরকারের।’

সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান বলেন, ‘সরকারি কাজে জনগণের ইচ্ছার প্রতিধ্বনি হলেই, তা গণতন্ত্র। শতকরা একশো ভাগ গণতন্ত্র কখনোই কোনো দেশে হয় না।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, প্রেসিডিয়াম সদস্য এস এম ফসল চিশতী, শফিকুল ইসলাম সেন্টু, আলমগীর সিকদার লোটন, ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তফা আল মাহমুদ, সুলতান আহমেদ সেলিম, আমানত হোসেন আমানত, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নুরুসহ দলের নেতাকর্মীরা।

সারাবাংলা/এএইচএইচ/এমও





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *