বিজয় দিবসে ইসলামী আন্দোলনের পতাকা র‌্যালি


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ঢাকায় পতাকা র‌্যালি করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় রাজধানীর বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেট থেকে এ পতাকা র‌্যালি শুরু হয়।

র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী। র‌্যালিটি বায়তুল মোকাররম উত্তর গেট, পল্টন মোড়, বিজয়নগর, কাকরাইল নাইট এঙ্গেল হয়ে পুরানা পল্টন মোড়ে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী বলেন, ‘বিজয়ের সুবর্ণ জয়ন্তির প্রাক্কালেও দেশ দুঃশাসন ও দুর্নীতিমুক্ত হতে পারেনি। সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত দেশ পাওয়ার আশায় ১৯৭১ সালে লাখ লাখ মানুষ জীবন বিলয়ে দিয়েছিল।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের জাতীয় জীবনে এ দিবসটির গুরুত্ব ও তাৎপর্য অপরিসীম। যারা দেশের জন্য জীবন দিয়েছেন এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে অপরিসীম ত্যাগ স্বীকার করেছেন সেই সব বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ সমগ্র জাতির অবদানের কথা আমরা গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি ও দেশের জন্য যারা জীবন দিয়েছেন তাদের যথাযথ প্রতিদানের জন্য দোয়া করছি।’

মাদানী বলেন, ‘প্রয়াত মাওলানা সৈয়দ মো. ফজলুল করীমকে একটি কুচক্রি মহল স্বাধীনতাবিরোধী হিসেবে চিহ্নিত করার অপচেষ্টা করছে। পীর সাহেব চরমোনাই স্বাধীনতা যুদ্ধে সহযোগি ভূমিকা পালন করেছিলেন এবং চরমোনাই মাদরাসাকে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য উম্মুক্ত করে দেন এবং মাদরাসায় লঙ্গরখানা খুলে হিন্দু-মুসলিম সকলের জন্য উম্মুক্ত করে দেন। যা বরিশাল এলাকার হিন্দু-মুসলিম মুক্তিযোদ্ধা মাত্রই জানেন। স্বাধীনতার ৫০ বছর পর এসে এ ধরনের অবান্তর কথা বলে জাতিকে বিভক্ত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত। দেশবাসীকে এ সকল কুচক্রি মহল থেকে সতর্ক থাকতে হবে।‘

ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) ইসলামী আন্দোলনের সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ ইমতিয়াজ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ, কেন্দ্রীয় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম, হুমায়ুন কবির, মুফতী ফরিদুল ইসলাম।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, ছাত্রনেতা এম হাছিবুল ইসলাম, আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন, মাওলানা এ বি এম জাকারিয়া, মাওলানা আরিফুল ইসলাম, আলহাজ্ব আব্দুল আউয়াল মজুমদার, ডা. শহিদুল ইসলাম যুবনেতা মুফতি মানসুর আহমদ সাকী প্রমুখ।

মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলেন, ‘জাতি এমন এক সময় মহান বিজয় দিবস পালন করতে যাচ্ছে যখন দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব চ্যালেঞ্জের মুখে। দেশে এক শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে।’

সভাপতির বক্তব্যে মাওলানা ইমতিয়াজ আলম বলেন, ‘স্বাধীনতার মূল অর্জন নাগরিক ও মানবিক অধিকার হারিয়ে দেশ আজ এক অনিশ্চিত গন্তব্যের পথে যাত্রা শুরু করেছে। দেশ ও জাতির অতন্দ্র প্রহরী ওলাময়ে কেরামকে একটি চিহ্নিত মহল দেশের স্বাধীনতা বিরোধী বলে উদ্দেশ্যপূর্ণভাবে অপমান ও কটাক্ষ করছে।’

সারাবাংলা/এজেড/এমআই





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: