শীতের সবজির উপকারিতা | ডিএমপি নিউজ


আমাদের শরীরে কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন কিংবা ফ্যাট এর পাশাপাশি মিনারেলস এবং ভিটামিন এর ভূমিকা অন্যতম। শরীরের প্রয়োজনীয় যাবতীয় ভিটামিন ও মিনারেলস রয়েছে শীতকালীন সতেজ শাক-সবজিতে। তাই শরীরকে ফিট রাখতে প্রয়োজন নিয়মিত শাক-সবজি গ্রহণ। শীতের শাক-সবজির মধ্যে অন্যতম হল- বাঁধাকপি, ফুলকপি, শিম, গাজর, লেটুসপাতা, পালংশাক, ব্রকলি ইত্যাদি।

আসুন জেনে নেই শীতের সবজির যত উপকারিতা

ব্রোকলি: ব্রোকলিতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন ও ক্যালসিয়াম বিদ্যমান। ব্রোকলি অত্যন্ত উপাদেয়, সুস্বাদু ও পুষ্টিকর একটি সবজি। এটি চোখের রোগ, রাতকানা, অস্থি বিকৃতি প্রভৃতির উপসর্গ দূর করে ও বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।

টমেটো: ক্যালরিতে ভরপুর এই সবজিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-সি। কাঁচা ও পাকা — এই দুই অবস্থাতে টমেটো খাওয়া যায়। টমেটোতে উপস্থিত ভিটামিন-সি ত্বক ও চুলের রুক্ষভাব দূর করে, ঠান্ডাজনিত রোগ ভালো করে। যেকোনো চর্মরোগ, বিশেষত স্কার্ভি রোগ প্রতিরোধ করে। টমেটোতে রয়েছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা প্রকৃতির ক্ষতিকর আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মির বিরুদ্ধে লড়াই করে।

ফুলকপি: শীতের সবজির মধ্যে অত্যন্ত সুস্বাদু এই সবজি। ভিটামিন এ, সি, ক্যালসিয়াম, মিনারেল, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ফাইটোক্যামিকেল ও ফাইবার সমৃদ্ধ হওয়ায় হজমে সাহায্য করে, উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে, মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।

বাঁধাকপি: বাঁধাকপিতে রয়েছে প্রচুর ফাইবার যা হজম প্রক্রিয়া সহজ করে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। এছাড়া ফ্ল্যাডোনরেড সমৃদ্ধ হওয়ায় ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে।

শিম: শিমে রয়েছে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ফাইবার। এছাড়া রয়েছে ক্যালসিয়াম এবং প্রোটিন। শিম হজম সহায়ক এবং কোলন ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।

গাজর: গাজর আঁশযুক্ত পুষ্টিগুণে ভরা সবজি। গাজরের বিটা ক্যারোটিন কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ হওয়ায় শরীরের টক্সিন জাতীয় উপাদান দূর করে।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: