‘বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাকে সামনের দিকে এগিয়ে নিচ্ছেন শেখ হাসিনা’


সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলাকে সঠিকভাবে পরিচালনা করে রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা সামনের দিকে নিয়ে যাচ্ছেন বলে মন্তব্য করেছেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল।

রোববার (১০ জানুয়ারি) সকালে ঐতিহাসিক ১০ জানুয়ারি স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ প্রাঙ্গণে দোয়া মাহফিল, প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী ও দুঃস্থদের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

এর আগে সকাল ৯টার দিকে যুবলীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ধানমন্ডি-৩২ নম্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিলের নেতৃত্বে শ্রদ্ধার্ঘ অর্পণ করা হয়।

যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, ‘ইতিহাসের মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবিসংবাদিত নেতৃত্বে দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের পথপরিক্রমায় পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে দুর্বার প্রতিরোধ গড়ে তোলে বাঙালি জাতি। বাঙালি জাতিকে মুক্তির মহামন্ত্রে উজ্জীবিত করে স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের পথে এগিয়ে নিয়ে যান বঙ্গবন্ধু।’ তিনি আরও বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ২৯০ দিন পাকিস্তানের কারাগারে প্রতি মুহূর্তে মৃত্যুর প্রহর গুণতে গুণতে ১৯৭২ সালের ৮ জানুয়ারি মুক্তি পান। মুক্তি পেয়ে লন্ডনের হিথরো বিমান বন্দর থেকে দিল্লি হয়ে ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি বাংলার মাটিতে পা রাখেন বাঙালি জাতির ইতিহাসের মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।‘

নিখিল আরও বলেন, ‘সদ্য স্বাধীন যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশের কিছুই ছিল না। সব ওই ফেরাউনের দলেরা শেষ করে দিয়ে গিয়েছিল। মাত্র সাড়ে তিন বছরের শাসনামলে যুদ্ধ-বিধ্বস্ত বাংলাদেশকে একটি সুন্দর কাঠামোর ওপর দাঁড় করান জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি আরও বলেন-প্রশাসনের এমন কোনো সেক্টর নেই যেখানে তিনি তার মেধা ও প্রজ্ঞার স্বাক্ষর রাখেননি। তারই দেখানো পথে, তারই অসমাপ্ত কাজ স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা।’

নিখিল আরও বলেন, ‘এই বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ, এই বাংলাদেশ মুসলমান-হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টানসহ সকল ধর্মাবলম্বীদের। এই বাংলাদেশকে নিয়ে, বাংলাদেশের উন্নয়নকে নিয়ে, বঙ্গবন্ধুকন্যা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনাকে নিয়ে যারাই ষড়যন্ত্র করবে বা ষড়যন্ত্র করার ধৃষ্টতা দেখাবে, তাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের নেতৃত্বে আমরা যুবলীগের প্রতিটি নেতা-কর্মীরা রুখে দাঁড়াবো, তাদের সকল ষড়যন্ত্রের দাঁতভাঙা জবাব দেব। বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে এই হোক আমাদের অঙ্গীকার।’

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট মামুনুর রশীদ, মঞ্জুর আলম শাহীন, শেখ ফজলে ফাহিম, মো. এনামুল হক খান, তাজ উদ্দিন আহমেদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সুব্রত পাল, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মো. মাজহারুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট মো. শামীম আল সাইফুল সোহাগ, ঢাকা মহানগর উত্তর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল, দক্ষিণ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইন উদ্দিন রানা, উত্তর সাধারণ সম্পাদক মো. ইসমাইল হোসেন, দক্ষিণ ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এইচ এম রেজাউল করিম রেজা। সভা পরিচালনা করেন যুবলীগের প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী ও উপপ্রচার দফতর সম্পাদক আদিত্য নন্দী।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন দফতর সম্পাদক মো. মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, শিক্ষা প্রশিক্ষণ ও পাঠাগার সম্পাদক ব্যারিস্টার আলী আসিফ খান রাজীব, সাংস্কৃতিক সম্পাদক বিপ্লব মোস্তাফিজ, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মো. হারিছ মিয়া শেখ সাগর, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. আব্দুল হাই, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা খলিলুর রহমান সরদার, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মুক্তা আক্তার, উপপ্রচার সম্পাদক আদিত্য নন্দী, উপদফতর সম্পাদক মো. দেলোয়ার হোসেন শাহজাদাসহ অনেকে।

সারাবাংলা/এনআর/এমআই





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *