Tandav Series Review: Saif Ali Khan, Dimple Kapadia starrer released on Amazon Prime Video this Friday


সুপর্ণা মজুমদার:  গুন্ডে’, ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’, ‘ভারত’-এর মতো সিনেমা তৈরি করেছেন পরিচালক আলি আব্বাস জাফর (Ali Abbas Zafar)। প্রথমবার নেটদুনিয়ার জন্য তৈরি করলেন ওয়েব সিরিজ। সইফ আলি খান (Saif Ali Khan), ডিম্পল কাপাডিয়া (Dimple Kapadia), মহম্মদ জিশান আয়ুব, সু্নীল গ্রোভারদের মতো অভিনেতাদের নিয়ে আমাজন প্রাইম ভিডিওয় (Amazon Prime Video) সাজাতে চেয়েছিলেন রাজনৈতিক ‘তাণ্ডব’ (Tandav)। কিন্তু হল আদতে অধিক সন্ন্যাসী গাজন নষ্টের মতো বিষয়।

গৌরব সোলাঙ্কির সঙ্গে যৌথভাবে ন’টি এপিসোডের চিত্রনাট্য লিখেছিলেন আলি। তাতে কিছুটা কৃষকদের জমি দখল, রাজনীতির পরিবারতন্ত্র, পুলিশের দুর্নীতি, দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া, মুসলিম যুবকদের কাহিনি তুলে ধরার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু গল্প সাজাতে গিয়েই বিপত্তি। কোন কাহিনিকে প্রাধান্য দেবেন তা হয়তো ভেবে উঠতে পারেননি পরিচালক-প্রযোজক। মণিরত্নম পরিচালিত ‘যুবা’ সিনেমা দেখে বেশ অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু এতদিন বাদে তাঁর ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের দৃশ্যগুলিতে ব্যবহার না করলেই ভাল হত।

কাহিনি শুরু হয় সমর প্রতাপ সিংয়ের (সইফ আলি খান) উচ্চাকাঙ্খার ভূমিকা দিয়ে। প্রধানমন্ত্রীর পদ পেতে নিজের বাবা দেবকী নন্দনকে (তিঘমাংশু ধুলিয়া) খুন করে সমর। সেই সত্যের কিছুটা আভাস পায় দেবকীর রক্ষিতা অনুরাধা কিশোর (ডিম্পল কাপাডিয়া)। সামান্য সূত্র ধরেই সমরকে ব্ল্যাকমেইল করে প্রধানমন্ত্রী হয়। কিন্তু সমর চক্রান্তের নতুন জাল বোনে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রনেতা শিবাকে (মহম্মদ জিশান আয়ুব) কাঁধে বন্দুক রেখে। 

[আরও পড়ুন: বিবেকানন্দ ও নেতাজির সমান মোদি! আবারও পোস্টার শেয়ার করে ক্ষোভ প্রকাশ শ্রীলেখার]

‘সেক্রেড গেমস’-এর পর সইফ আলি খানের দ্বিতীয় সিরিজ ‘তাণ্ডব’। গ্রে শেডের চরিত্রে ‘ওমকারা’ ছবির ল্যাংড়া ত্যাগীর প্রত্যাশা রাখলে ভুল করবেন। গোটা সিরিজে কেবল ঘাড় ঘুরিয়ে এক্সপ্রেশন দিয়েছেন। আর পাতৌদি প্যালেসের অন্দরমহল দেখিয়েছেন খান কয়েক পেগ সুরা পান করতে করতে। অনুরাধার চরিত্রে ডিম্পল কাপাডিয়ার অভিনয় একটু বেশিই সংযত। কৃতিকা কামরা, সারা জেন ডিয়াস, গওহর খানদের চরিত্রের প্রয়োজন ছিল বলে তো মনে হয় না। কুমুদ মিশ্রর মতো অভিনেতারও সুযোগ সীমিত ছিল। তবে সিরিজের চরিত্রের মতোই কিং মেকার হয়ে উঠেছেন সুনীল গ্রোভার (Sunil Grover)। গুরপালের চরিত্রের নৃশংসতা দক্ষতার সঙ্গে ফুটিয়ে তুলেছেন। সিংহাসনের খেলা ওয়েব দুনিয়ার বেশ পরিচিত। চেনা সেই ময়দানেই খেলার চেষ্টা করেছিলেন আলি। কাহিনির জটিলতায় নিজেই হারিয়ে গেলেন।  

[আরও পড়ুন: টলিপাড়ায় ফের ব্যান্ড-বাজা-বারাত, এবার প্রেমিকার সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধলেন ইন্দ্রাশিস]





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *