জিয়ার জন্মবার্ষিকীতে নয়াপল্টনে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে নয়াপল্টনে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নিচে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প আয়োজন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) সকাল দশটা থেকে এ মেডিকেল ক্যাম্প শুরু হয়। দুপুর ১২ টায় মেডিকেল ক্যাম্প উদ্বোধন করেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত মেডিকেল ক্যাম্পে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) অর্ধ শতাধিক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক অংশ নিয়েছেন। তারা দুস্থ রোগীদের ফ্রি প্রেসক্রিপশনের পাশাপাশি ফ্রি ওষুধও সরবরাহ করছেন। সকাল ১০ টা থেকে শুরু হওয়া এ মেডিকেল ক্যাম্প দুপুর দুইটা পর্যন্ত চলবে।

দুপুর সাড়ে ১২ টায় সরেজমিনে দেখা যায় হৃদরোগ, নাক-কান-গলা, গ্যাস্ট্রোলজি, চর্ম-যৌন, অর্থোপেডিক, মেডিসিন বিশেষজ্ঞসহ প্রায় ৫০ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক রোগীদের ফ্রি চিকিৎসা দিচ্ছেন। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ড্যাবের সাবেক মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, ড্যাব নেতা রফিকুল ইসলাম বাচ্চু মেডিকেল ক্যাম্পে উপস্থিত থেকে সার্বিক বিষয় তদারকি করছেন।

করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও শত শত রোগী সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে বিএনপি আয়োজিত ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে রোগীদের কথা শুনছেন এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাপত্র ও বিনামূল্যে ওষুধ দিচ্ছেন।

উল্লেখ্য, জিয়াউর রহমানের ৮৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় শেরেবাংলা নগরে জিয়ার মাজারে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরা ফাতেহা পাঠ ও পুষ্পার্ঘ অর্পণ করেন। বেলা ১২টায় দলের বিভিন্ন ইউনিট এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকে সেখানে ফাতেহা পাঠ ও পুষ্পার্ঘ অর্পণ করা হয়। সকাল ৬টায় দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারাদেশের দলীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন, দৈনিক সংবাদপত্রে ক্রোড়পত্র প্রকাশ ও শহরব্যাপী পোস্টারিং করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে বিকেল ৩ টায় বিএনপির উদ্যোগে কেন্দ্রীয়ভাবে ঢাকায় ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া জিয়ার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে দলের বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনসহ পেশাজীবী, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন জিয়ার জীবন ও কর্মের বিভিন্ন দিক নিয়ে চিত্রাঙ্কন, রচনা প্রতিযোগিতা, আলোকচিত্র প্রদর্শনির আয়োজন করা হয়েছে।

সারাবাংলা/এজেড/পিটিএম





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *