latest

দেশে পৌঁছেই বাবার কবর জিয়ারতে ছুটে গেলেন সিরাজ


দেশে পৌঁছেই বাবার কবর জিয়ারতে ছুটে গেলেন সিরাজ

বাবার মৃত্যুর পরেও দেশে ফিরে না যাওয়ার কারণে বেশ সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন মোহাম্মদ সিরাজ। তবে তিনি জানান মৃত্যুর আগে বাবার চাওয়া মোতাবেকই খেলা ছেড়ে দেশে ফিরেননি তিনি। এই মিশনে সফল হয়েই দেশে ফিরেছেন সিরাজ এবং ফিরেই বিমানবন্দর থেকে সোজা ছুটে যান করবস্থানে।

দেশে পৌঁছেই বাবার কবর জিয়ারতে ছুটে গেলেন সিরাজ

সিরাজের বাবা বেশ কয়েক মাস ধরেই অসুস্থ ছিলেন। অসুস্থ বাবাকে হাসপাতালে রেখে দেশ ছেড়েছিলেন সিরাজ। প্রথমে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) খেলতে সংযুক্ত আরব আমিরাতে ও তারপরে দলের সাথে অস্ট্রেলিয়া উড়াল দেন জাতীয় দলের দায়িত্ব পালনে। যেই স্বপ্ন নিতে তিনি অস্ট্রেলিয়া গিয়েছিলেন সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে কিন্তু এই স্বপ্নপূরণ দেখে যেই মানুষটা সবচেয়ে বেশি খুশি হতেন সেই মানুষটা আর পৃথিবীতেই নেই।

Also Read – সিডনির ঘটনায় ভারতকে খেলা ছাড়তে বলেছিলেন আম্পায়ার

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে জাতীয় সংগীতের সময় সিরাজের ভেজা চোখ জোড়া ক্যামেরা এড়ায়নি। পরে সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানিয়েছিলেন বাবার কথা মনে পড়াতেই কেঁদে ফেলেছিলেন। তিনি তখন আরও বলেন তার বাবার স্বপ্ন ছিল তার বাবার স্বপ্ন ছিল ছেলেকে ভারতের টেস্ট দলে খেলতে দেখা।

সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে অভিষেক হওয়ার পরে টানা তিনটি ম্যাচই খেলেছেন সিরাজ। এরইমধ্যে জয় পাওয়া ম্যাচে তিনি ৫ উইকেটও শিকার করেছেন। সিরিজে তিন ম্যাচে মোট ১৩টি উইকেট শিকার করে বিজয়ীর বেশে দেশে ফিরে গিয়েছেন সিরাজ। ভারতও সিরিজ জিতেছে ২-১ ব্যবধানে।

বাবাকে শেষ দেখা দেখতে না পারা সিরাজ দেশে ফিরেই ছুটে যান বাবার কবর জিয়ারত করতে। হায়দয়াবাদ বিমানবন্দরে অবতরণ করার পরে বিমানবন্দর থেকে বাড়ি না গিয়ে আগে তিনি যান করবস্থানে।

সিরাজ বলেন, ‘আমি আমার জীবনের সবচেয়ে বড় সমর্থককে হারিয়ে ফেলেছি। আমার ক্রিকেট ক্যারিয়ার গড়তে আমাকে সবচেয়ে বেশি সমর্থন করেছিলেন বাবা। এটা আমার জন্য বড় ধাক্কা। যদিও তিনি এখন আর পৃথিবীতে নেই, কিন্তু তিনি সবসময়ই আমার সাথেই থাকবেন।’

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *