ওয়েস্ট ইন্ডিজের এমন পারফরম্যান্সে হতাশ পাপন


ওয়েস্ট ইন্ডিজের এমন পারফরম্যান্সে হতাশ পাপন

বাংলাদেশের মাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ জাতীয় দলের পারফরম্যান্সে হতাশা প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ক্যারিবীয়দের কাছে আরও ভালো পারফরম্যান্স আশা করেছিলেন বলে জানিয়েছেন তিনি। 

ওয়েস্ট ইন্ডিজের পারফরম্যান্সে হতাশ পাপন
দুই ম্যাচেই প্রতিরোধহীন ক্রিকেট খেলে হেরেছে ক্যারিবীয়রা। ফাইল ছবি

ওয়েস্ট ইন্ডিজের মূল দলের বিপক্ষেও সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ দলের দারুণ সাফল্য। দেশে তো বটেই, সফরকারী দলের ভূমিকায়ও ক্যারিবীয়দের সিরিজ হারিয়েছে বাংলাদেশ। এই সিরিজেও টাইগারদের জয়ধ্বনি তাই প্রত্যাশিত ছিল। কিন্তু তাই বলে এমন প্রতিরোধহীন ক্রিকেট!

সিরিজ উদ্বোধনী ম্যাচে আগে ব্যাট করতে নেমে ১২২ রানেই অলআউট। বোলিং কিছুটা ভালো করলেও সফরকারী দল বরণ করে নেয় ৬ উইকেটের পরাজয়। এমন ব্যাটিং দৈন্যদশার পর দ্বিতীয় ম্যাচে ক্যারিবীয়রা ঘুরে দাঁড়াবে- এই প্রত্যাশা ছিল বাংলাদেশেরও। কিন্তু তাতে বড়জোর অল্প কিছু রান বাড়ল। দ্বিতীয় ম্যাচে দলীয় সংগ্রহ ‘বেড়ে’ হল সাকুল্যে ১৪৮।

Also Read – হোয়াইটওয়াশ এড়ানো নয়, ক্যারিবীয়দের দৃষ্টি ‘১০’ পয়েন্টে

একসময়ের পরাশক্তি ও দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের এমন অসহায় আত্মসমর্পণের পেছনে যুক্তি থাকতে পারে জেসন মোহাম্মদের নেতৃত্বাধীন ‘দ্বিতীয় সারির দল’। তবুও ওয়েস্ট ইন্ডিজের এমন পারফরম্যান্সে বেজায় হতাশ বিসিবি সভাপতি। তবে তার প্রত্যাশা, তৃতীয় ওয়ানডে ও টেস্ট সিরিজে ভালো পারফরম্যান্স দেখাতে পারবে সফররতরা।

পাপন বলেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছ থেকে আমরা যেরকম পারফরম্যান্স প্রত্যাশা করেছিলাম প্রথম দুই খেলায় তা দেখিনি। তবে সামনে তো আরও খেলা আছে। আমার ধারণা, অবশ্যই তারা আরও উন্নতি করবে।’

ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচ মাঠে গড়াবে ২৫ জানুয়ারি, ‘সাগরিকা’ খ্যাত চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে। সিরিজের শেষ ওয়ানডে শেষে এই ভেন্যুতেই শুরু হবে প্রথম টেস্ট। ৩ তারিখ শুরু হওয়া চট্টগ্রাম টেস্ট শেষ করে দুই দলই পাড়ি জমাবে ঢাকায়। ফের লড়াই গড়াবে ‘হোম অব ক্রিকেট’ খ্যাত মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অন্তর্গত সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট শুরু হবে ১১ ফেব্রুয়ারি।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *