দ্বিতীয় ইনিংসের ভরাডুবিতে হোয়াইটওয়াশ শ্রীলঙ্কা


দ্বিতীয় ইনিংসের ভরাডুবিতে হোয়াইটওয়াশ শ্রীলঙ্কা

গলে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ৬ উইকেটে হারিয়ে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিয়েছে ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় ইনিংসে লঙ্কানরা মাত্র ১২৬ রানে গুটিয়ে গেলে ইংল্যান্ডের সামনে জয়ের লক্ষ্য ছিল ১৬৪ রান। 

দ্বিতীয় ইনিংসের ভরাডুবিতে হোয়াইটওয়াশ শ্রীলঙ্কা

চতুর্থ দিনের শুরুতে ইংল্যান্ড ৩৪৪ রানে গুটিয়ে দিয়ে ৩৭ রানের লিড পায় শ্রীলঙ্কা। লাসিথ এম্বুলদেনিয়া একাই শিকার করেন ৭ উইকেট। কিন্তু লিডের সুফল কাজে লাগাতে পারেনি দীনেশ চান্দিমালের দল। দলীয় ১৯ রানে কুশল পেরেরাকে হারিয়ে উইকেট পতনের শুরু হয়। এরপর একে একে সব ব্যাটসম্যানই ব্যর্থতার পরিচয় দেন।

Also Read – একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে সাকিবের আরেক রেকর্ড

শেষপর্যন্ত লঙ্কানদের ইনিংস থামে ১২৬ রানে। তাতে ইংল্যান্ডের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৬৪ রান। শ্রীলঙ্কার পক্ষে এম্বুলদেনিয়াই সবচেয়ে বেশি রান করেন, যিনি বল হাতেও যথেষ্ট চেষ্টা করেছেন। তার ব্যাট থেকে আসে ৪০ রান। এছাড়া আর কারও রানই ২০ এর ঘরে পৌঁছায়নি।

ইংল্যান্ডের পক্ষে চারটি করে উইকেট শিকার করেন ডম বেস ও জ্যাক লিচ। ১.৫ ওভার বল করে কোনো রান খরচ না করেই দুটি উইকেট শিকার করেন সেঞ্চুরিয়ান ও অধিনায়ক জো রুট।

সহজ জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ইংলিশরা চারটি উইকেট হারালেও পঞ্চম দিনে খেলা গড়াবার আগেই জয় তুলে নেয়। ৮৯ রানে চতুর্থ উইকেটের পতনের পর ডম সিবলি ও জস বাটলার দেখেশুনে খেলে দলের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন। সিবলি ১৪৪ বলে ৫৬ ও বাটলার ৪৮ বলে ৪৬ রান করে অপরাজিত থাকেন। দ্বিতীয় ইনিংসে এম্বুলদেনিয়া শিকার করেন ৩টি উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

শ্রীলঙ্কা ১ম ইনিংস : ৩৮১/১০ (১৩৯.৩ ওভার)
ম্যাথিউস ১১০, ডিকভেলা ৯২, দিলরুয়ান পেরেরা ৬৭, চান্দিমাল ৫২
অ্যান্ডারসন ৬/৪০, উড ৩/৮৪

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস : ৩৪৪/১০ (১১৬.১ ওভার)
রুট ১৮৬, বাটলার ৫৫
এম্বুলদেনিয়া ১৩৭/৭, রমেশ ৪৮/১

শ্রীলঙ্কা ২য় ইনিংস : ১২৬/১০ (৩৫.৫ ওভার)
এম্বুলদেনিয়া ৪০, রমেশ ১৬
বেস ৪৯/৪, লিচ ৫৯/৪, রুট ০/২

ইংল্যান্ড ২য় ইনিংস : ১৬৪/৪ (৪৩.৩ ওভার)
সিবলি ৫৬*, বাটলার ৪৬*
এম্বুলদেনিয়া ৭৩/৩, রমেশ ৪৮/১

ফল : ইংল্যান্ড ৬ উইকেটে জয়ী
সিরিজ : ইংল্যান্ড ২-০ ব্যবধানে জয়ী।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *