Saayoni Ghosh, Madan Mitra attends an event together


Published by: Suparna Majumder |    Posted: February 5, 2021 8:42 pm|    Updated: February 5, 2021 8:42 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এক মঞ্চে সায়নী ঘোষ (Saayoni Ghosh) ও মদন মিত্র (Madan Mitra)। নারী শক্তির বহিঃপ্রকাশের জন্য ‘শক্তিরূপেণ’ নামের একটি মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন দু’জনে। সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়েই টলিউড অভিনেত্রীকে বাংলার অন্যতম প্রতিবাদী কণ্ঠ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন তৃণমূল নেতা।

শুক্রবারের এই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে পশ্চিমবঙ্গের ঐক্যের সংস্কৃতি নিয়ে কথা বলেন মদন মিত্র। এরপরই সায়নীর প্রসঙ্গ তোলেন। বলেন, “সায়নী তো দূরের কথা, একটা কারও গায়ে আঁচ পড়লে গোটা বাংলায় আগুন জ্বলবে। বাংলা বরদাস্ত করবে না এসব।” এদিন সায়নীকে এগিয়ে চলার পরামর্শ দিয়ে মদন মিত্র জানান, বাংলা তাঁর পাশে রয়েছে। মদন মিত্রর পরই মঞ্চে বক্তব্য রাখেন অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ। টলি-অভিনেত্রী জানান, নারী সুরক্ষায় পশ্চিমবঙ্গ এক নম্বর। মহিলা মুখ্যমন্ত্রী থাকার সুবিধার কথা উল্লেখ করে পশ্চিমবঙ্গের মেয়ে হিসেবে নিজেকে ভাগ্যবতী মনে করেন বলেও জানান টলিপাড়ার নায়িকা।

[আরও পড়ুন: ‘মেয়েরা মসনদে বসলে মানতে পারে না পুরুষরা’, মায়ানমারের সেনা অভ্যুত্থান নিয়েও টুইট কঙ্গনার]

“ক্ষমতা থাকলে সায়নীর গায়ে হাত দিয়ে দেখাও।” পুরুলিয়ার জনসভায় এভাবেই হুঙ্কার দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। পুরশুড়ার সভাতেও কড়া ভাষায় হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন তিনি। সেবার সায়নীর পাশাপাশি দেবলীনা দত্তর (Debolina Dutta) নিগ্রহের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেছিলেন, “এত বড় সাহস! একটা করে দেখাক না, তারপরে বুঝবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কী! আর তারপরে বুঝবে পশ্চিমবাংলাটা কী! এত বড় সাহস এদের? যারা মা-বোনেদের সম্মান দেয় না। মা-বোনেদের ইজ্জত নিয়ে টানাটানি করে তাদের সাথে আবার কথা? তাদের সঙ্গে কথা বলার থেকে মুখ না দেখা ভাল।”

[আরও পড়ুন: ওয়েব দুনিয়ায় এবার জয়া আহসান, কোন ছবিতে দেখা যাবে তাঁকে?]

এমন পরিস্থিতিতে একই মঞ্চে সায়নী ঘোষ ও মদন মিত্রর উপস্থিতিতে নতুন গুঞ্জনের সূত্রপাত হল। প্রশ্ন উঠেছে, তাহলে কি রাজনীতিতে পা রাখছেল টলিপাড়ার এই নায়িকা। শুক্রবারই ব্রাত্য বসুর তত্ত্বাবধানে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন বর্ষীয়ান অভিনেতা দীপঙ্কর দে, অভিনেতা ভরত কল, টেলিভিশনের পরিচিত মুখ লাভলি মিত্র এবং রশিদ খানের কন্যা শাওনা খান। এর আগে তৃণমূলে যোগ দেন সৌরভ দাস ও কৌশানি মুখোপাধ্যায়। এমনিতে সায়নী বামপন্থায় বিশ্বাসী বলেই শোনা যায়। তবে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে কি রাজনৈতিক মতাদর্শ বদলে ফেলবেন অভিনেত্রী? উত্তরের অপেক্ষায় সকলে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ

নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *