যে খেলতে চায় না, খেলবে না; চুক্তি করে নেওয়া হবে : পাপন


যে খেলতে চায় না, খেলবে না; চুক্তি করে নেওয়া হবে : পাপন

সাকিব আল হাসানের দেশের টেস্ট ম্যাচ বাদ দিয়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) খেলার সিদ্ধান্ত নিয়ে হুলস্থুল হচ্ছে বাংলাদেশের ক্রিকেটপাড়ায়। তবে শুধু সাকিব না, বাংলাদেশের সব খেলোয়াড়ের জন্যই নাজমুল হাসান পাপন বার্তা দিয়ে রাখলেন, কেউ খেলতে না চাইলে জোর করে তাকে খেলানো হবে না।

শ্রীলঙ্কার এলপিএল আয়োজনের সামর্থ্য নিয়ে সন্দিহান পাপন

কোনো সিরিজের আগে যদি খেলোয়াড়দের কেউ খেলতে না চায় সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডেরও (বিসিবি) জোর করে কিছু করতে দেখা যায় না। এক্ষেত্রে যে খেলোয়াড়দের ইচ্ছার কাছে বিসিবি জিম্মি তা অকপটে স্বীকার করে নিয়েছেন পাপন। সেই সাথে খেলোয়াড়দের জন্য বার্তা দিয়েছেন কাউকে আর খেলার জন্য জোরও করবে না বিসিবি।

Also Read – ক্যাপ্টেন্সি দিয়েও সাকিবকে টেস্ট খেলানোর চেষ্টা করলাম : পাপন

পাপন বলেন, ‘এটা অস্বীকার করার কোনো পথ নেই। এর আগেও যে এমন কিছু হয়নি তা না। আমাদের কথা খুবই স্পষ্ট, আমরা কাউকে জোর করে কোথাও পাঠাব না। যে খেলতে চায় না, খেলবে না৷ কেউই অপরিহার্য নয়৷ আমরা চাই সকলেই খেলুক। কিন্তু কারও যদি জাতীয় দলের চেয়ে অন্য কোথাও যেতে ভালো লাগে তাহলে তারা মুক্ত। আর এই বার্তাটা শুধু সাকিবের জন্য নই, সবার জন্যই।’

পাপন আরও জানান এখন থেকে চুক্তিতে লিখে নেওয়া হবে কোন খেলোয়াড় কোন সংস্করণে খেলতে চান। যারা বিসিবির চুক্তিতে যাবে তাদেরকে অন্য জায়গায় খেলার জন্য আর ছুটি দেওয়া হবে না এবং যাদের ছুটি প্রয়োজন তাদেরকে চুক্তিতে রাখা হবে না। বিসিবি সভাপতির ভাষ্যমতে,

‘আমরা আজকে আলোচনা করেছি, আমরা ওদের সাথে একটা চুক্তিতে যাব। আমরা তো এবছর এখনো কোনো চুক্তি করিনি। নতুন চুক্তিতে যখন নতুন কিছু যুক্ত হবে ওখানেও স্পষ্ট লেখা থাকবে কে কোন সংস্করণ খেলতে চাই তাদেরকে বলতে হবে এবং এটাও জানতে হবে ওই সময়ে অন্য কোনো জায়গায় তাদের অন্য কিছু থাকলে তার জাতীয় দলে খেলবে নাকি ওখানে খেলবে। আমাদের চুক্তিতে স্বাক্ষর করলে তো ওখানে আমরা আর যেতে দিবো না। স্পষ্ট বিষয়। এতদিন ব্যক্তি বিশেষের ওপরে থাকলেও এখন লিখিতভাবে নিয়ে নিচ্ছি। এখানে কারো বলার কিছু থাকবে না।’

চুক্তি নিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘কেন্দ্রীয় চুক্তি করানো হলে তখন আর সমস্যা হবে না। আমি ভেবে নিচ্ছি, সব সংস্করণে খেলা সবার জন্য পছন্দ নাও হতে পারে। চুক্তিটা না হওয়া পর্যন্ত আমি সব উত্তর দিতে পারব না। আলোচনাটা করেছি। চুক্তিটা প্রকাশ করা হয়ে গেলে আর কোনো সমস্যা থাকবে না। তখন ওরাই জানবে। আমার কাছে ছুটিও নেওয়া লাগবে না।’

 



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *