এখন থেকে দলের সাথে থাকবেন সুজন-দুর্জয়রা


এখন থেকে দলের সাথে থাকবেন সুজন-দুর্জয়রা

টেস্ট সিরিজে দলের দৃষ্টিকটু পরাজয়ের পর ‘কমিউনিকেশন গ্যাপ’ দেখেছিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। সেই দূরত্ব ঘোচাতে নতুন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বোর্ড। এখন থেকে দলের বিদেশ সফরে সাথে থাকবেন কোনো একজন বোর্ড পরিচালক।

এখন থেকে দলের সাথে থাকবেন সুজন-দুর্জয়রা

একসময় জাতীয় দলের নিয়মিত সঙ্গী ছিলেন বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন। দলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে একাধিকবার দায়িত্ব সামলানো সুজন ম্যানেজার হিসেবে কাজ করেছেন দীর্ঘদিন। রাসেল ডমিঙ্গো প্রধান কোচ হয়ে আসার পর তার চাওয়াতেই জাতীয় দলের সঙ্গে ছিন্ন হয় সুজনের সম্পর্ক।

Also Read – নিউজিল্যান্ডে দুই-তিনজন ক্রিকেটারের উপর নির্ভর করে জেতা সম্ভব নয় : তাসকিন

এ প্রসঙ্গে দিন দুয়েক আগে নাজমুল হাসান পাপন বলেছিলেন, ‘ইনফরমেশন ও কমিউনিকেশন গ্যাপ হচ্ছে। একটা উদাহরণ দেই। আগে খালেদ মাহমুদ সুজন আমাদের ম্যানেজার ছিল। বোর্ড ও দলের লিঙ্ক ছিল ও। অন্তত আমি জানতে পারতাম কী হচ্ছে না হচ্ছে। এখন কিন্তু আমি জানি না। মাঠে নামার পর জানতে পারি। এটা তো বিরাট কমিউনিকেশন গ্যাপ।’

বোর্ড সভাপতির এই কথাতেই পরিস্কার ছিল, ‘দূরত্ব’ কমাতে আবারো সুজনদের জাতীয় দলের কাছাকাছি রাখতে চাইছে বিসিবি। সুজন যখন দলের সাথে ছিলেন তখন দলের পারফরম্যান্স ছিল সন্তোষজনক। তার তত্ত্বাবধানে অনূর্ধ্ব-১৯ দল জিতেছে বিশ্বকাপ। অভিজ্ঞ এই সাবেক ক্রিকেটারের সঙ্গ উপভোগ করেন দলের সদস্যরা- এমন কথাও শোনা যায়।

শেষপর্যন্ত তা-ই হতে চলেছে। বিসিবি সভাপতি জানিয়েছেন, এখন থেকে দলের সাথে থাকবেন বোর্ড পরিচালকদের কোনো একজন।

তিনি বলেন, ‘আগে একটা সমস্যা ছিল যে, কমিউনিকেশন গ্যাপ অনেক বড় হয়ে দাঁড়িয়েছিল সাম্প্রতিক সময়ে। সেটাকে দূর করার জন্য যেমন এইবারের নিউজিল্যান্ড সিরিজে আমাদের জালাল (ইউনুস) ভাই যাচ্ছে বোর্ড থেকে। আজকে আবার সবাইকে বলে দেওয়া হয়েছে, এখন থেকে এটা বাধ্যতামূলক- কেউ না কেউ; হয় খালেদ মাহমুদ সুজন অথবা নাঈমুর রহমান দুর্জয় কেউ না কেউ যাবে।’

‘এখন থেকে কেউ না কেউ দলের সাথে থাকবে। সেই সুবিধাটা হবে, যাতে করে আর কমিউনিকেশন গ্যাপ না হয়।’– বলেন তিনি।

 



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *