নিউজিল্যান্ডে ২০-২২ দিন ভেট্টোরির সার্ভিস পাবে টাইগাররা


নিউজিল্যান্ডে ২০-২২ দিন ভেট্টোরির সার্ভিস পাবে টাইগাররা

কিংবদন্তিরা যখন কোচ হন, তখনো থাকে তারকাখ্যাতি। ব্যতিক্রম ঘটেনি ড্যানিয়েল ভেট্টোরির ক্ষেত্রেও। নিউজিল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক বাংলাদেশের স্পিন কোচ হিসেবে দায়িত্ব পেলে ঢালাও করে তা প্রচার করে বিশ্বের ক্রীড়া মিডিয়া। কিন্তু বেরসিক মহামারির কারণে সেই ভেট্টোরির সাথেই বাংলাদেশের সম্পর্কে ছেদ পড়তে চলেছে। যদিও নিউজিল্যান্ড সফরে ২০-২২ দিন ভেট্টোরি থাকবেন দলের সাথে। 

ভেট্টোরির অবদান অস্বীকার করছে না বিসিবি

নিউজিল্যান্ডের কঠোর করোনা-নীতির কারণে দেশের বাইরে থেকে ঘরে ফিরতে বেশ ঝামেলা পোহাতে হয় নিউজিল্যান্ডারদের। এই ঝামেলার কারণে বেড়ে যায় বিসিবির খরচ। আর তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোম সিরিজে এই দামি কোচকে আনা হয়নি। বাংলাদেশ দল নিউজিল্যান্ডে যাওয়ার আগেই চাউর হয়, ভেট্টোরির সাথে চুক্তির ইতি ঘটছে মাঝপথেই। তবে নিউজিল্যান্ড সফরে স্বাগতিকদের এই গ্রেটের সার্ভিস পাবে বাংলাদেশ দল।

Also Read – ভারতের বিরুদ্ধে আইসিসিকে ব্যবস্থা নিতে বললেন ইনজামাম

বিসিবি প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন বলেন, ‘ড্যানিয়েল ভেট্টোরি কিন্তু বাংলাদেশ দলের সাথে অনেকদিন ধরেই সম্পৃক্ত। হয়ত করোনার কারণে উনার মুভমেন্টে সমস্যা হচ্ছে। মূল সমস্যা হল- বাংলাদেশ বা যে জায়গায়ই দলের সাথে থাকবে, এরপর দেশে ফিরতে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এই ব্যাপারটা উনার জন্য চ্যালেঞ্জিং হচ্ছে। আমাদের নিউজিল্যান্ড সফরে উনি দলের সাথে যোগ দেবেন। বাংলাদেশ দলকে সার্ভিস দেবেন।’

ভেট্টোরির মত একজন ক্রিকেট ব্যক্তিত্বের চুক্তি এরকম হুট করে শেষ হয়ে যাওয়া শোভনীয় নয়, নয় ভালো দৃষ্টান্তও। ভবিষ্যতে অন্যান্য কোচদের বাংলাদেশে কাজ করার ক্ষেত্রে অনুৎসাহের কারণও তো হতে পারে এমন ঘটনা। তাও ভেট্টোরির সাথে ছিল ১০০ দিনের চুক্তি, শুরুতে যা ফিসফাস রটিয়েছিল- কেন এত কম সময়।

প্রধান নির্বাহী জানান, ‘কিছু কিছু বিষয় চলে এসেছে যা উনার মত একজন কিংবদন্তি ক্রিকেটারের জন্য বিষয়গুলো অন্যভাবে দেখছি। বোর্ড মনে করে, ভেট্টোরির মত কিংবদন্তি ক্রিকেটার যদি বাংলাদেশ দলের সাথে থাকে, বাংলাদেশ দলের ড্রেসিংরুমে থাকে, এটার আলাদা এক মূল্য আছে। উনার মত অভিজ্ঞ একজন অধিনায়ক, বিশেষ করে নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে তার অভিজ্ঞতা অনেক মূল্যবান। বোর্ড যেটা করেছে সবকিছু চিন্তাভাবনা করেই করেছে এবং সার্বিক বিবেচনায় যেটা ভালো মনে হয়েছে সেটাই করেছে।’

ভেট্টোরি তাই নিউজিল্যান্ড সফরের পরই দূরে সরে যাচ্ছেন বা দূরে সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে, এমনটি বলা যাচ্ছে না এখনই। সুজন বলেন, ‘আমরা সিরিজ বাই সিরিজ যাচ্ছি। কারণ এই করোনার কারণে মুভমেন্টে সীমাবদ্ধতা আছে, দেশে ফেরার ক্ষেত্রে নিয়মকানুনের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। আপাতত আমরা নিউজিল্যান্ড সিরিজেই তার সাথে চুক্তিবদ্ধ আছি। নিউজিল্যান্ডে তিনি ২০ থেকে ২২ দিনের মত বাংলাদেশ দলের সাথে থাকবেন।’



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *