ক্রাইস্টচার্চের সেই মসজিদের সামনে গিয়ে বিষণ্ণ মুশফিক


ক্রাইস্টচার্চের সেই মসজিদের সামনে গিয়ে বিষণ্ণ মুশফিক

২০১৯ সালের ১৫ মার্চ, ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদ। পরদিন ক্রাইস্টচার্চে শুরু তৃতীয় টেস্ট। সংবাদ সম্মেলন আর অন্যান্য আনুষ্ঠানিকতা সারতে একটু দেরিই হয়ে যায় বাংলাদেশ দলের। জুম্মার নামাজ ততক্ষণে প্রায় শুরু হয়ে গেছে। ক্রিকেটাররা মসজিদে প্রবেশ করবেন যখন, তখন বিপথগামী ভেতরে চালাচ্ছে তাণ্ডবলীলা।

 ক্রাইস্টচার্চের সেই মসজিদে গিয়ে বিষণ্ণ মুশফিক

নিছক ভাগ্যের জোরে সেই ভয়ানক ঘটনা থেকে বেঁচে ফিরেছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ তখনো বাকি। ১৬ মার্চ থেকে টেস্ট শুরু হওয়ার কথা ছিল। ম্যাচের আগের দিন প্রস্তুতিতে ব্যস্ত ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া বাংলাদেশ। ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট পূর্ববর্তী আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন শেষ করে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা নিচ্ছিলেন জুমার নামাজ আদায়ের প্রস্তুতি।

Also Read – কী নিয়ে বেঁধেছিল কোহলি-স্টোকসের, জানালেন সিরাজ

সেই লক্ষ্যে যাচ্ছিলেন ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদে। মসজিদের ফটকে পৌঁছাতেই এক পথচারী ভেতরে প্রবেশ করতে মানা করেন। একটু পরই ক্রিকেটাররা টের পান, ভেতরে কী চলছে। বিপদ বুঝতে পেরে দ্রুতগতিতে সবাই আশ্রয় নেন টিম বাসে। সিরিজ শেষ না করেই তাৎক্ষনিকভাবে দেশে ফিরে আসেন।

সেই হামলা পুরো পৃথিবীকে কাঁদিয়েছিল। এখনো এর দুঃস্মৃতি ভোলা সম্ভব হয়নি। যখন সেই ঘটনার প্রায় দুই বছর পূর্ণ হতে চলেছে, আবারো তখন বাংলাদেশ দল নিউজিল্যান্ড সফরে। বায়োবাবলে থাকা টাইগাররা এবার বাড়তি নিরাপত্তা পাচ্ছে মহামারির কারণে।

এরই মধ্যে আল নূর মসজিদের সামনে গিয়ে বিষণ্ণ হয়ে পড়লেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। শুক্রবার (৫ মার্চ) মসজিদের সামনে টিম বাসে বসে থাকা অবস্থায় মুশফিক একটি ছবি তুলে তা পোস্ট করেছেন জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে।

সেখানে মুশফিক লিখেছেন, ‘আসসালামু আলাইকুম। এটাই সেই মসজিদ, আর একইসাথে আজও শুক্রবার।’

Assalamualaikum all…this was the mosque as well as Friday 😢😢😢😢

Posted by Mushfiqur Rahim on Thursday, March 4, 2021

 

ক্রাইস্টচার্চের দুই বছর আগের সেই ঘটনা স্মরণে রেখে নিউজিল্যান্ডের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অবশ্য সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। যদিও ফের সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তির হুমকি দেওয়ায় একজনকে আটক করা হয়েছে।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *