আড়াই দিনে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত


আড়াই দিনে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত

আহমেদাবাদে চতুর্থ টেস্টে ইংল্যান্ডকে ইনিংস এবং ২৫ রানের ব্যবধানে হারিয়ে ৩-১ এ সিরিজ জিতে নিয়েছে ভারত। সেই সাথে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালেও নিজেদের পাকা করে নিল ভারত।

দুই ইনিংসে ৯ উইকেট নেন প্যাটেল। ছবিঃ বিসিসিআই

ইংল্যান্ডের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠার আশার প্রদীপ আগেই নিভে গিয়েছিল। লর্ডসে নিউজিল্যান্ডে প্রতিপক্ষ কে হবে সেটিই ছিল মূল দেখার বিষয়। তবে ঘরের মাঠে ভারতের দুই স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন এবং অক্ষর প্যাটেলের স্পিন বিষে নীল হয়েছে ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। ৩ উইকেট হাতে রেখে ভারত তৃতীয় দিন শুরু করলেও উইকেট পড়তে বেশি দেরি হয়নি।

ভারত ৩৬৫ রানে গুঁটিয়ে গেলেও ততক্ষণে আহমেদাবাদ টেস্ট থেকে ছিটকে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ইংল্যান্ডের প্রথম নিতে বেশি দেরি করেনি ভারত। দলীয় ১০ রানের মাথায় অশ্বিনের বলে স্লিপে রাহানের হাতে ক্যাচ তুলে দেন ওপেনার জ্যাক ক্রলি। এই ইনিংসেও রানের দেখা পাননি বেয়ারস্টো। রানের দেখা পাবার আগেই পরের বলেই আউট হন তিনি।

Also Read – পাকিস্তানের সুনাম নষ্ট করায় পিসিবি সভাপতির জবাবদিহিতা চান শোয়েব

অশ্বিনের জোড়া আঘাতের পর ভারতকে তৃতীয় উইকেট এনে দেন অক্ষর প্যাটেল। সিবলিকে বিদায় করে দ্বিতীয় ইনিংসের প্রথম উইকেট তুলে নেন প্যাটেল। ইংল্যান্ডের ব্যাটিং বিপর্যয়ে ত্রাণ কর্তা হয়ে উঠতে পারলেন না স্টোকসও। দলীয় ৩০ রানে প্যাটেলের বলে ২ রান করে লেগ স্লিপে থাকা কোহলির হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি।

দলের যখন ৩০ রানে চার উইকেট নেই ততক্ষণে ম্যাচের ভাগ্য ভারতের দিকে ঝুঁকে পড়েছিল। সেখান থেকে দলকে টেনে তুলতে চেষ্টা করেন পপ এবং রুট। স্পিনারদের বিরুদ্ধে নিজেদের ব্যাটিং টেকনিক এবং ধৈর্যর পরীক্ষা দিচ্ছিলেন এ দুই ব্যাটসম্যান। তবে স্পিনারদের সামনে কতক্ষণ দাঁত চেপে ক্রিজে টিকে থাকবেন। ৬৫ রানে প্যাটেলের বলে স্ট্যাম্পিংয়ের শিকার হন পপ (১৫)।

পরের ওভারেই অশ্বিনের বলে এলবিডব্লুর শিকার হন রুট। রিভিউ নিলেও সে যাত্রায় বাঁচতে পারেননি ৩০ রান রুট। ফোকসকে সঙ্গে নিয়ে ইনিংস ব্যবধানে হার এড়াতে চেয়েছিলেন লরেন্স। তবে দুই ব্যাটসম্যানের ৪৪ রানের জুটি ভাঙেন প্যাটেল। ১১১ রানে আট উইকেট পড়লে ম্যাচ হার কেবলই সময়ের ব্যাপার ছিল ইংল্যান্ডের জন্য। লরেন্স শুধু ইনিংস পরাজয়ের ব্যবধান কমিয়েছেন। শেষ পর্যন্ত ইংল্যান্ডকে থামতে হয় ১৩৫ রানে। লরেন্স আউট হন সর্বোচ্চ ৫০ করে। ভারতের হয়ে পাঁচটি করে উইকেট লাভ করেন অশ্বিন এবং প্যাটেল।

ইংল্যান্ডকে ৩-১ এ হারিয়ে শুধু সিরিজই জিতেনি ভারত আগামী জুনে লর্ডসে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালেও জায়গা করে নিয়েছে ভারত। আগামী ১৮ জুনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ফাইনালে মাঠে নামবে ভারত।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

ইংল্যান্ড (১ম ইনিংস) ২০৫ (স্টোকস ৫৫, লরেন্স ৪৬: প্যাটেল ৪-৬৮)

ভারত (১ম ইনিংস) ৩৬৫ (পান্ট ১০১, সুন্দার ৯৬*: স্টোকস ৪-৮৯)

ইংল্যান্ড (২য় ইনিংস) ১৩৫ (লরেন্স ৫০, রুট ৩০: অশ্বিন ৫-৪৭)



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *