আমি হয়ত কোচদের খুশি করতে পারি না : ইমরুল


আমি হয়ত কোচদের খুশি করতে পারি না : ইমরুল

বাংলাদেশ দল আরও একটি সিরিজ খেলতে যাচ্ছে কিন্তু এবারও দলে জায়গা হয়নি ইমরুল কায়েসের। পরীক্ষিত এই ব্যাটসম্যান সম্প্রতি জাতীয় ক্রিকেট লিগেও রান পেয়েছেন কিন্তু দলে জায়গা পেলেন না। তিনি মনে করেন, কোচদের খুশি করতে না পারার কারণেই তাকে বারবার অবহেলিত হতে হয়।

বাংলাদেশকে বিশ্বকাপ জেতাতে চান ইমরুল

ইমরুল কায়েস, বাংলাদেশ ক্রিকেটের এক পরিচিত নাম। এক যুগ ধরে আছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কিন্তু কখনোই ধারাবাহিকভাবে দল জায়গা পাননি আবার পেলেও ধারাবাহিক পারফর্ম করতে পারেননি। কিন্তু আবার দলে থাকা ‘অন্য অনেকের’ চেয়ে ভালোও করেছেন কিন্তু আবার তিনিই বাদ পড়েছেন। এর কারণ হিসেবে ইমরুল মনে করেন, তিনি হয়ত জাতীয় দলের কোচরা তাকে ভুল বোঝে বলেই বারবার তাকে জায়গা হারাতে হয়।

Also Read – মরগানের চোখে সাকিব ও নারাইন একই ভূমিকার ক্রিকেটার

বিডিক্রিকটাইমকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে ইমরুল বলেন,

‘আমি হয়ত বা কোচদের ইচ্ছামত খেলোয়াড় হতে পারি না কখনো। প্রথমে যখন আসে তখন তাদের খুশি করতে পারি না। তাদের চাওয়া মতো অবদান রাখতে পারি না। তবে যখন কোচ চলে যায়, দিনশেষে আমাকেই ভালো বলে। জেমি সিডন্স থেকে শুরু করে হাথুরুসিংহে পর্যন্ত সবাই শুরুতে আমাকে পছন্দ করেনি কিন্তু দেখতে দেখতে একসময় পছন্দ করা শুরু করে এবং আমার ওপর বিশ্বাস করেছে। একটা খেলোয়াড়ের প্রতি কোচের বিশ্বাস রাখাটা খুব বড় ব্যাপার। ১/২টি ম্যাচ দেখেই যদি মনে করেন ওর আর কিছু দেওয়ার নেই তাহলে এভাবে তো একটা খেলোয়াড় কিছু করতে পারে না।’

দলে জায়গা পাওয়ার ধারাবাহিকতা না থাকাও তার পারফর্মে প্রভাব ফেলে বলে অভিযোগ করেন, ‘টেস্ট ম্যাচগুলোতে আমার যে উত্থানপতন হয়েছে এর জন্য আমার নিজেরও কিছু ঘাটতি ছিল, যেগুলোর কারণে ভালো খেলতে পারিনি। আবার প্রস্তুতির ব্যাপারও ছিল, কারণ আমি জানতামও না এই সিরিজে থাকব কিনা। সবমিলিয়ে পারিপার্শ্বিকতার কারণে এরকম হয়েছে।’

তবে বর্তমানে যারা জাতীয় দলে আছে তাদেরকে শুভকামনা জানাতে মোটেও কার্পণ্য করেননি ইমরুল। লিটন দাস, মোহাম্মদ মিঠুনরা যোগ্যতাবলেই জাতীয় দলে আছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। ইমরুল বলেন,

‘যারা এখন আছে, লিটন, মিঠুন সবাই ভালো খেলোয়াড়। তারা নিজেদের সেরা জায়গা থেকেই ওখানে আছে, নিজেদের সেরাটি দেওয়ার চেষ্টায় করে। খেলোয়াড়রা ব্যর্থও হবে, আবার সফলও হবে। যারা বাংলাদেশ দলে খেলছে, সবার প্রতি আমার শুভকামনা থাকবে। আমি চাই অবশ্যই তারা সবসময় নিজেদের সেরাটি দিবে। যেহেতু এখন আমাদের পারফরম্যান্স ভালো যাচ্ছে না, শ্রীলঙ্কায় যেন ঘুরে দাঁড়ায়। আমরা যেভাবে শততম টেস্ট জিতে এসেছিলাম, ওই ধারাবাহিকতা যেন থাকে।’

ইমরুলের মতে শ্রীলঙ্কা সফরে জয়ের জন্য বড় অবদান রাখতে হবে মেহেদী হাসান মিরাজকে। ইমরুলের ভাষ্যমতে, ‘সবাই যদি ভালো পারফর্ম করতে পারে তাহলে বাংলাদেশ অনেক ভালো ফল আনবে, খারাপ হওয়ার কোনো কারণ নেই। মিরাজ আছে দলে অনেক দিন ধরেই। ও বড় বড় অবদান রেখেছে বাংলাদেশের জয় পাওয়ার ম্যাচগুলোতে।’



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *