সাম্প্রদায়িক শক্তিকে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে দেবে না যুবলীগ: নিখিল


সারাবাংলা ডেস্ক

ঢাকা: অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে যুবলীগ মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে দেবে না বলে মন্তব্য করেছেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল।

সোমবার (১২ এপ্রিল) যুবলীগ আয়োজিত “করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে দেশব্যাপী ফ্রি মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং জনসচেতনামূলক লিফলেট বিতরণ” কার্যক্রম অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন। যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের নির্দেশনায় কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন করেন সাধারণ সম্পাদক নিখিল।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, হেফাজতে ইসলামের নেতারা ঘোষণা দিয়েছে যে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ মারা গেলে তারা নাকি জানাজা পড়াবে না। আমি স্পষ্টভাষায় বলতে চাই আমাদের জানাজায় তাদের প্রয়োজন নেই। আমাদের জানাযা পড়ানোর জন্য অনেক আলেম ও আল্লাহর ওলিরা রয়েছেন। ভন্ড মামুনুলরা মারা গেলে তাদের জানাজা কারা পড়াবে তা আমরা দেখব।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ হলো অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ। এই অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে কোনো সাম্প্রদায়িক শক্তিকে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে দেবে না যুবলীগ।

মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, গত বছর করোনা সংক্রমণের শুরু থেকেই শেখ হাসিনার নির্দেশে যুবলীগ মাঠে থেকে সাধারণ মানুষকে সহায়তা করেছে, লাশ দাফন করেছে, ফ্রি এম্বুলেন্স সেবা দিয়েছে। ৪৫ লাখ অসহায় পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে। করোনার দ্বিতীয় ধাপে এসেও মানবিক যুবলীগ মানুষের পাশে থাকবে। এরই মধ্যে আমরা একটি মেডিকেল টিম গঠন করেছি। সাধারণ মানুষকে টেলিমেডিসিন সেবা দিচ্ছি। সারা বাংলাদেশে ১০ লাখেরও বেশি মাস্ক বিতরণ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, এই করোনা মহামারিতে হেফাজত ইসলামের নেতাদের ভূমিকা কী ছিল? তারা কখনো সাধারণ মানুষের পাশে ছিল না। সবসময় রাষ্ট্রবিরোধী কার্যকলাপে জড়িত ছিল। এদের কাছ থেকে দেশের উন্নয়ন, মানুষের উন্নয়নের কোনো কিছু আশা করা যায় না।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, যুবলীগের টেলিমেডিসিন বিভাগের প্রধান সমন্বয়ক ও প্রেসিডিয়াম সদস্য ডা. খালেদ শওকত আলী, ইঞ্জিনিয়ার মৃনাল কান্তি জোদ্দার, টেলিমেডিসিন বিভাগের সমন্বয়ক ও সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. হেলাল উদ্দিন, মো. সাইফুর রহমান সোহাগ, জহির উদ্দিন খসরু, প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী, দফতর সম্পাদক মো. মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, টেলিমেডিসিন বিভাগের সমন্বয়ক ও স্বাস্থ্য সম্পাদক ডা. ফরিদ রায়হান, তথ্য ও যোগাযোগ (আইটি) সম্পাদক শামছুল আলম অনিক, উপ-দফতর সম্পাদক মো. দেলোয়ার হোসেন শাহজাদা, উপ-গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক অ্যাডভোকেট শেখ নবীরুজ্জামান বাবু, উপ-ক্রীড়া সম্পাদক আব্দুর রহমান, উপ-কৃষি ও সমবায় সম্পাদক মোল্লা রওশন জামির রানা, সহ-সম্পাদক মামুন আজাদ, বাবলুর রহমান বাবলু, টেলিমেডিসিন বিভাগের সমন্বয়ক ও সহ-সম্পাদক ডা. মো. মঞ্জুরুল ইসলাম ভূইয়া রাফি, মনোয়ারুল ইসলাম মাসুদ, টেলিমেডিসিন বিভাগের সমন্বয়ক ও কার্যনির্বাহী সদস্য ডা. আওরঙ্গজেব আরু, আবুল কালাম আজাদ, জি এম গাফফার হোসেন, ইঞ্জিনিয়ার মো. মুক্তার হোসেন চৌধুরী কামাল, টেলিমেডিসিন বিভাগের সমন্বয়ক ও কার্যনির্বাহী সদস্য ড. মো. রায়হান সরকার রিজভী, কেন্দ্রীয় সদস্য মো. সফিউল আলম প্রধান কমল, আব্দুল্লাহ রানা, ব্যারিস্টার ফারহান ফাহিম, মনিরুজ্জামান তরুন, ডা. মফিজুর রহমান জুম্মা, অ্যাডভোকেট ওলিউল্লাহ সৌরভ, সাবের হোসেন, জহিরুল ইসলাম শিশির, নাজিম উদ্দিন, আবুল হাকিম তানভীর, ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ইসমাইল হোসেনসহ কেন্দ্রীয়, মহানগর ও বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতারা।

সারাবাংলা/এসএসএ





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *