দেশে করোনার কোনো টেস্ট নেই: ফখরুল


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দেশে করোনার কোনো টেস্ট নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজতি সংবাদ সম্মেলনে তিনি মন্তব্য করেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘বিশেষজ্ঞরা বলছেন- এবার সম্ভবত দক্ষিণ আফ্রিকার যে ভেরিয়েন্ট, সেই ভেরিয়েন্ট ঢুকে পড়েছে বাংলাদেশে। এই ভাইরাস প্রচণ্ডভাবে সংক্রামক। এটাতে মৃতের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। তাই ঘটতে যাচ্ছে এখন। গতকাল ৮৩ জন মারা গেছেন।’

‘টেস্ট তো হচ্ছে না। আমার একটা অভিজ্ঞতার কথা বলছি- আমার বাসায় যারা কাজ করেন তাদের টেস্ট করানোর জন্য আামি গত তিনদিন ধরে চেষ্টা করছি। তারা প্রতিদিন উত্তরায় একটা সেন্টারে যায়, প্রতিদিনই সেখান থেকে বলা হয় যে, ফরম নাই, করা যাবে না। শেষে আজ ভোর ৬টায় পাঠিয়েছি। সেখানে দেখা গেছে যে, তার সিরিয়াল ৫০ নম্বর। বাকিরা সিরিয়াল পায়নি। ওই সেন্টারে দেড়শ’র বেশি টেস্ট হয়নি’— বলেন মির্জা ফখরুল।

তিনি বলেন, ‘এখানে বড় একটা প্রতারণার আশ্রয় নিয়েছে সরকার। জনগণকে বিভ্রান্ত করছে, বুঝাচ্ছে। টেস্ট হচ্ছে না। টেস্টের সুবিধাও কিন্তু সারাদেশে নেই। ২০টি জেলায় কোনো সুবিধাই নাই। তাদেরকে বিভিন্ন জেলায় গিয়ে টেস্ট করতে হয়।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আজকের পত্রিকায় এসছে একটা খবর। কী চরম উদাসীনতা, কী চরম দুর্নীতি এবং ব্যর্থতা হতে পারে যে, দশ মাস আগে এয়ারপোর্টে আসা ইক্যুইপমেন্টগুলোর ছাড় হয়নি। বিশ্বব্যাংক ও এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সাহায্যে কেনা ইক্যুইপমেন্টগুলো এখনো এয়ারপোর্টে পড়ে আছে। সেখানে তিনশটি ভেন্টিলেটর আছে। অক্সিজেন সরবারহ করা সামগ্রী আছে।’

তিনি বলেন, ‘প্রশ্ন হচ্ছে যে, প্রকল্প নেওয়া হয়েছে দশ মাস আগে। ইক্যুইপমেন্ট এসেছে, কিন্তু স্বাস্থ্য বিভাগ এখন পর্যন্ত সেটা ছাড় করে হাসপাতালগুলোতে তা পৌঁছাতে পারেনি। এই সরকারের কোনো দায়বদ্ধতা নেই। ফলে রাষ্ট্র পরিচালনার সবক্ষেত্রে তারা চরম ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছে এবং জনগণকে তাদের সুবিধা থেকে বঞ্চিত করছে।’

সারাবাংলা/এজেড/পিটিএম





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: