মারা গেলেন এডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু, প্রধানমন্ত্রীর শোক


বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু এমপি আর নেই (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।আজ বিকাল ৪টা ৪৫ মিনিটে তিনি মারা গেছেন। সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ১৩ এপ্রিল থেকে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন আব্দুল মতিন খসরু।

তাঁর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গভীর দুঃখ ও শোক প্রকাশ করেছেন। আজ এক শোক বার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বরেণ্য আইনজীবি ও জননেতা হিসেবে আব্দুল মতিন খসরু জনগণের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি (খসরু) দেশের আইন ও বিচার বিভাগের উন্নয়নে বিশাল অবদান রেখেছেন।

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা একজন জননেতা এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হারালাম। তিনি জাতির পিতার হত্যাকান্ডসহ জাতীয়ভাবে গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন মামলার বিচারকালে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করেছেন এবং ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় দক্ষতার সাথে কাজ করেছেন।’

প্রধানমন্ত্রী মরহুমের আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং তার শোক-সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক আইনমন্ত্রী এডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু এমপি করোনা আক্রান্ত হওয়ায় রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। পরে করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ হলেও অন্যান্য শারীরিক অসুস্থতায় তার চিকিৎসা সেখানে চলছিল।

গত ৩১ মার্চ শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে তাকে কেবিনে আনা হয়েছিল। পরে আবার অবস্থার অবনতি হলে গত ৬ এপ্রিল তাকে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। ১৩ এপ্রিল অবস্থার আরও অবনতি হওয়ায় লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয় আব্দুল মতিন খসরুকে।

গত ১৫ মার্চ আব্দুল মতিন খসরু সংসদ সচিবালয়ে করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দেন। ১৬ মার্চ সকালে পাওয়া রিপোর্টে তার করোনা পজিটিভ আসে। ওইদিনই তাকে সিএমএইচে ভর্তি করা হয়।

আব্দুল মতিন খসরু গত ১০ ও ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ২০২১-২২ সেশনের নির্বাচনে সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হন।

আব্দুল মতিন খসরু আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য। কুমিল্লা-৫ (বুড়িচং – ব্রাহ্মণপাড়া) আসন থেকে পাঁচ বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য। তিনি বর্তমানেও ওই আসনের সংসদ সদস্য। 

 





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: