করোনায় ঝুঁকি নিয়ে কর্মরত শ্রমিকদের ভাতা দেওয়ার দাবি


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়ে কর্মরত শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করা ও ঝুঁকি ভাতা দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদ নেতারা। পর্যাপ্ত পরিবহনের ব্যবস্থা না করে লকডাউনের মধ্যে কারখানা খোলা রেখে শ্রমিক হয়রানির নিন্দাও করেন তারা।

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে সংগঠনের পক্ষ থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে এই দাবি জানানো হয়।

সংগঠনের যুগ্ম সমন্বকারী আব্দুল ওয়াহেদ এবং কামরুল আহসান স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বলা হয়, গার্মেন্টস মালিকরা বারবার নিজেদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করছেন। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম বলছে শ্রমিকদের নিয়ে যাওয়ার জন্য পরিবহনের ব্যবস্থা না করে কারখানা খোলা রাখায় সর্বাত্মক লকডাউনের প্রথম দিনেই শ্রমিকরা পরিবহন সংকট, অতিরিক্ত যাতায়াত ব্যায় বহন, জিজ্ঞাসাবাদসহ নানা হয়রানির শিকার হয়েছেন। এছাড়া শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করার কথা বলা হলেও সকল কারখানায় প্রয়োজনীয় আয়োজন করা হয়নি।

নেতারা বলেন, ‘করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির এক বছর অতিক্রান্ত হওয়া এবং সরকারের কাছ থেকে বিভিন্ন ভাবে প্রায় অর্ধ লক্ষ কোটি টাকা ঋণের সমর্থন পাওয়ার পরও এধরণের দায়িত্বহীন আচরণ কাম্য নয়।’

করোনা সংক্রমিত শ্রমিকের জন্য যথাযথ চিকিৎসার আয়োজন না করে শ্রমিককে বাধ্যতামূলক ছুটিতে বাসায় পাঠিয়ে দিয়ে দায়মুক্ত হওয়া যাবে না এমন মন্তব্য করে নেতারা আরও বলেন, ‘জীবনের ঝুঁকি নিয়ে উৎপাদনের চাকা সচল রেখেছে যে শ্রমিক তাদের ঝুঁকি ভাতা দিতে হবে এবং ফ্রন্ট লাইনার হিসাবে বিবেচনা করে করোনা পরীক্ষা এবং টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।’ আর করোনার অজুহাতে গতবছরের মতো শ্রমিক ছাঁটাই কিংবা বেতন-ভাতা কাটা যাবে না বলেও জানান তারা।

সারাবাংলা/এএইচএইচ/এমও





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *