latest

‘বিএনপির রাজনীতি গভীর সাগরে রাডারবিহীন জলযানের মতো’


সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জনগণের কাছ থেকে দূরে সরে যাওয়ায় বিএনপির রাজনীতি দিকশূন্য হয়ে পড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, অপরিণামদর্শী ও জনবিরোধী কর্মসূচির কারণেই বিএনপির রাজনীতি এখন গভীর সাগরে রাডারবিহীন জলযানের মতো। তারা এখন পথহারা পথিক।

শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) সকালে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটি আয়োজিত কয়েকটি সাংবাদিক সংগঠন ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের মধ্যে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের তার সরকারি বাসভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন।

বিএনপি ভ্যাকসিন নিয়ে অপরাজনীতি করার চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ভ্যাকসিন নিয়ে অপরাজনীতি করে ব্যর্থ হয়েছে বিএনপি। তারা এখন লকডাউন নিয়ে অপপ্রচারে নেমেছে। লকডাউন নিয়ে বিএনপি’র এমন বিভ্রান্তিকর বক্তব্য মানুষের ঘরে অবস্থানকে নিরুৎসাহিত করতে পারে। প্রকৃতপক্ষে তারা জনগণকে ভয় পায় বলেই জনমানুষের পাশে দাঁড়ানোর সাহস হারিয়েছে।

দেশকে বিএনপি-শূন্য করতে সরকার কাজ করছে— বিএনপি নেতাদের এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রকৃতপক্ষে বিএনপি-শূন্য করা নয়, সরকার চায় বিএনপি সত্যিকার অর্থে একটি দায়িত্বশীল রাজনৈতিক দলের ভূমিকা পালন করুক। বিএনপি সহিংসতা, ষড়যন্ত্র আর অপরাজনীতি ছেড়ে জনমানুষের কল্যাণে ইতিবাচক রাজনৈতিক ধারায় ফিরে আসবে— সরকার এটিই চায়।

বিএনপি করোনা নিয়ন্ত্রণ চায় না অভিযোগ করেন আওয়ামী লীগের এই সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, বিএনপি নেতারা বলছেন, দেশে নাকি গণতন্ত্র নেই। বিএনপি গণতন্ত্রকে এগিয়ে নিতে কী ভূমিকা পালন করেছে? পদে পদে বাধা তৈরি করে অগণতান্ত্রিক চর্চা করে তারা এখন গণতন্ত্রের ফেরিওয়ালা সেজেছে।

শেখ হাসিনা সরকার কোনো সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানের ওপর হস্তক্ষেপ করে না উল্লেখ করে কাদের বলেন, দেশের বিচার বিভাগ এখন সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে কাজ করছে। এ দেশের গণতন্ত্রকে হত্যা ও দুর্নীতিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছিল বিএনপি। আজ বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ গণতন্ত্র, উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে। সব স্তরের জনগণের সহযোগিতায় এই পথযাত্রা সফল হবে ইনশাআল্লাহ।

জনগণ বিএনপির পশ্চাৎমুখী রাজনীতিকে প্রত্যাখ্যান করে শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও সমৃদ্ধ আগামী বির্নিমাণের রাজনীতির পক্ষে দাঁড়িয়েছে বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, অসহায় মানুষের জন্য এরই মধ্যে শেখ হাসিনা সরকার প্রয়োজনীয় সহায়তা দেওয়ার কাজ শুরু করেছে। কারণ জনগণের জন্যই রাজনীতি করেন শেখ হাসিনা। জনগণের স্বার্থে কখন কী করতে হবে. তা বঙ্গবন্ধুকন্যা ভালো বোঝেন। আর এ জন্যই তিনি আজ দেশের জনগণের আস্থার ঠিকানা ও নির্ভরতার বাতিঘর।

অনুষ্ঠানে ধানমন্ডি প্রান্তে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, শিক্ষা ও মানবসম্পদ সম্পাদক সামছুন্নাহার চাঁপা, উপদফতর সম্পাদক সায়েম খানসহ অন্যান্য সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতারা।

সারাবাংলা/এনআর/টিআর





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *