latest

প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিনেই প্রধান নির্বাচকের উচ্ছ্বাস


প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিনেই প্রধান নির্বাচকের উচ্ছ্বাস

টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে শনিবার (১৭ এপ্রিল) মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ দল। এর আগে কোয়ারেন্টিন শেষ করে মাত্র দুইদিন শ্রীলঙ্কায় অনুশীলন করেছে টাইগাররা। তবে এই প্রস্তুতিতেই বেশ সন্তুষ্ট প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু।

প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিনেই প্রধান নির্বাচকের উচ্ছ্বাস

শ্রীলঙ্কায় গিয়ে অনুশীলনের জন্য স্থানীয়দের পায়নি টাইগাররা, কারণটা মহামারি করোনা। ঘাটতি না রাখতে দেশ থেকেই নিয়ে যাওয়া হয়েছে বিশাল বহর। এত আয়োজনের পর প্রস্তুতি মনমত না হলে আক্ষেপ থাকত। তবে প্রধান নির্বাচকের কণ্ঠে প্রস্তুতি নিয়ে ঝরল সন্তুষ্টি।

Also Read – শান্ত-সাইফের অর্ধশতক, বড় সংগ্রহের পথে তামিমরা

তিনি বলেন, ‘প্রস্তুতি ম্যাচটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল আমাদের জন্য। শ্রীলঙ্কায় এসে প্রস্তুতির সুবিধা পুরোটা কাজে লাগাতে পেরেছি। খেলোয়াড়রা দুই দিন অনুশীলনের পর ম্যাচ প্র্যাকটিসের সুযোগ পেয়েছে, এতে উপকৃত হয়েছে। আবহাওয়া, আর্দ্রতা, উইকেট সবকিছুর সাথে মানিয়ে নেওয়ার জন্য প্রস্তুতিটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল।’

শ্রীলঙ্কার কন্ডিশন বাংলাদেশের মত হলেও সূক্ষ্ম কিছু পার্থক্য আছে। সাগর ঘেঁষা বলে আর্দ্রতা বেশি। গরমও কখনও কখনও অসহনীয় ঠেকে। নান্নুর বিশ্বাস, প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিনেই খেলোয়াড়রা এসব বিষয় মানিয়ে নিয়েছেন, ‘আজকে প্রথম দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ শেষ করছি। আমার মনে হয় খেলোয়াড়রা কন্ডিশনের সাথে যথেষ্ট মানিয়ে নিয়েছে। যথেষ্ট ভালো প্র্যাকটিসও হয়েছে। টপ অর্ডাররা যথেষ্ট ভালো ব্যাটিং করেছে। বোলাররাও ভালো জায়গায় বল করার চেষ্টা করেছে। সবকিছু মিলিয়ে ভালো প্র্যাকটিস ম্যাচ। কালকের খেলার পর পুরোপুরি প্রস্তুতি নিতে পারব।’ 

প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম দিন ব্যাট হাতে আলো ছড়িয়েছেন তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্তরা। যদিও শুরুতে ব্যাটিং সহজ ছিল না বলে দাবি নান্নুর। তিনি বলেন, ‘প্রথম ঘণ্টায় ব্যাটিং করা অনেক কঠিন ছিল। আমাদের ওপেনার তামিম সাইফরা দারুণ ব্যাটিং করেছে। তারপর শান্ত মুশফিকও ভালো করেছে। বোলাররাও প্রাণপণে চেষ্টা করেছে লাইন ও লেন্থ ঠিক রাখার জন্য। আমার বিশ্বাস, এই প্রস্তুতি ম্যাচ থেকে যথেষ্ট ভালো ফিডব্যাক আমরা পেয়েছি।’



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *