এলপিজির দাম নির্ধারণে ব্যবসায়ীদের স্বার্থ দেখা হয়েছে: সিপিবি


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বাংলাদেশে এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) এলপি গ্যাসের যে দাম নির্ধারণ করেছে সেখানে জনস্বার্থ না দেখে ব্যবসায়ীদের স্বার্থ দেখা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)। এ জন্য অবিলম্বে দাম পুনঃনির্ধারণ ও খুচরা বাজারে প্রকৃত দাম কার্যকরের দাবি জানিয়েছে দলটি। শনিবার (১৭ এপ্রিল) দলটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এক যৌথ বিবৃতিতে এই দাবি জানান।

বিবৃতিতে তারা বলেন, এলপিজি সিলিন্ডারের দাম নির্ধারণে বিইআরসি দায়িত্ব পালন না করায় ব্যবসায়ীরাই দাম নির্ধারণ করেছিল। সম্প্রতি বিইআরসি এলপিজির দাম নির্ধারণে গণশুনানি করে। অথচ দাম নির্ধারণে গণশুনানিতে সিপিবিসহ বিভিন্ন জনসংগঠনের প্রতিনিধিরা যে মতামত দিয়েছিলেন, জনস্বার্থের সেইসব মতামত উপেক্ষা করা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে ব্যবসায়ীদের স্বার্থ রক্ষা করা হয়েছে। এমনকি যে দাম নির্ধারণ করা হয়েছে বাজারে তার থেকে বেশি দামে গ্যাস কিনতে বাধ্য হচ্ছে দেশের মানুষ।’

বিবৃতিতে বলা হয়, গণশুনানিতে বিইআরসি টেকনিক্যাল কমিটি ১২ কেজি সিলিন্ডারের দাম ৮৬৬ টাকা প্রস্তাব করেছিল। আমরা যুক্তি-তথ্য দিয়ে ঐ দাম ৭৫০ থেকে ৮০০ টাকা নির্ধারণের কথা বলেছিলাম। অথচ এখন আন্তর্জাতিক বাজারে এলএনজি’র দাম কমতে থাকলেও ১২ কেজির সিলিন্ডার গ্যাসের দাম নির্ধারণ করা হলো ৯৭৫ টাকা। যা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। অবিলম্বে এই দাম যুক্তিসংগত ভাবে পুনঃনির্ধারণ করতে হবে।

বিবৃতিতে মানসম্পন্ন সিলিন্ডারের গায়ে খুচরা মূল্য লেখা ও নির্ধারিত দামে যাতে গ্রাহকরা গ্যাস কিনতে পারে তার জন্য ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানানো হয়। এছাড়া সরকারি ১২ দশমিক পাঁচ কেজির সিলিন্ডার গ্যাস নির্ধারিত ৫৯১ টাকায় দেশের নিম্ন আয়ের মানুষের কাছে বিক্রির সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নের দাবি জানান তারা। বিবৃতিতে সরকারি উদ্যোগে সিলিন্ডার গ্যাসের উৎপাদন বাড়ানোররও দাবি জানানো হয়।

গ্রাহকরা নির্ধারিত দামে, নির্দিষ্ট মাপে ও নিরাপদ গ্যাস সিলিন্ডার কিনতে না পারলে সংশ্লিষ্ট কোম্পানির বিরুদ্ধে যাতে অভিযোগ করতে পারে এজন্য ‘অভিযোগ কমিটি’ গঠনেরও দাবি জানান হয় বিবৃতিতে।

এছাড়াও বিবৃতিতে দেশের গ্যাসের উৎপাদন, সরবরাহ বাড়ানো ও কম দামে, কম খরচে, ভ্যাট করিয়ে এলপিজি আমদানি করে ঘরে ঘরে ও শিল্প-কারখানায় কম দামে গ্যাস সরবরাহ এবং এক্ষেত্রে দুর্নীতি, অপচয় ও অব্যবস্থাপনা দূর করারও দাবি জানানো হয়।

সারাবাংলা/এএইচএইচ/পিটিএম





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *