বাঁশখালীর শ্রমিকদের দাবি মেনে নিতে বাম গণতান্ত্রিক জোটের আহ্বান


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে শ্রমিক হত্যার ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে হত্যাকাণ্ডের জন্য দায়ীদের গ্রেফতার, বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং নিহতদের পরিবারকে আজীন আয়ের সমান আর্থিক ক্ষতিপূরণ এবং আহতদের সুচিকিৎসা ও ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। একইসঙ্গে শ্রমিকদের ন্যায়সঙ্গত দাবি মেনে নিতে আহ্বান জানানো হয়েছে।

শনিবার (১৭ এপ্রিল) জোটের নেতৃবৃন্দ এক বিবৃতিতে এই দাবি জানান। বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন বাম গণতান্ত্রিক জোট কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের সমন্বয়ক ও বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশীদ ফিরোজ ও জোটের কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের সদস্য সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম, বাসদ এর সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বাসদ (মার্কসবাদী)’র সাধারণ সম্পাদক কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরী, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী)’র সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবির জাহিদ, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক।

এক যুক্ত বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ উল্ল্যেখ করেন, চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে গন্ডামারায় কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে শ্রমিকদের ন্যায়সঙ্গত দাবি জানাতে গেলে শ্রমিকদের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে পুলিশের গুলিবর্ষণ ও ৪ জন শ্রমিক নিহত এবং আরও অনেক শ্রমিকের আহত হওয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, বাঁশখালীতে পরিবেশ ধ্বংস করে কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের শুরুতেও এলাকাবাসী প্রতিবাদ করতে গেলে ৬ জনকে হত্যা করা হয়। এবারেও শ্রমিকদের দাবি ছিল মাসের শুরুতে ৫-১০ তারিখের মধ্যে বেতন দেওয়া, রমজানে বিকেল ৫টার মধ্যে ছুটি দেওয়া এবং রমজানে ইফতারের জন্য বরাদ্দ দেওয়া, যখন তখন ছাঁটাই বন্ধ করা, ছাঁটাইকৃত শ্রমিকদের আনঅনুযায়ী সমুদয় পাওনা পরিশোধ করাসহ ১০ দফা দাবি জানিয়েছিল। এই দাবিগুলো অত্যন্ত যৌক্তিক। অথচ কর্তৃপক্ষ ন্যায্য দাবি না মেনে গুলি করে শ্রমিকদের হত্যা এবং অর্ধশতাধিক শ্রমিককে আহত করল।

সারাবাংলা/এএইচএইচ/একে





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *