নৌ পুলিশের অভিযানে কারেন্ট জাল ও জাটকা ইলিশ জব্দ, গ্রেফতার ৬


ডিএমপি নিউজঃ চাঁদপুরের মেঘনা নদীতে অভিযান চালিয়ে অবৈধ কারেন্ট জালসহ ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে বাংলাদেশ নৌ পুলিশের হরিনাঘাট নৌ ফাঁড়ি। গ্রেফতারকৃতরা হলো আরশাদ মিয়া (৩৫), দেলোয়ার মোল্লা (৩২), বাবু মোল্লা (২৫), আল ইসলাম (১৯), রহমত আলী (৪৫) এবং মামুন মিজি (২১)।

এ সময় তাদের হেফাজত হতে ৩০ লাখ মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল, ১২০ কেজি নিষিদ্ধ ঘোষিত জাটকা ও ১টি জাটকা ধরার নৌকা জব্ধ করা হয়।  

অপর এক অভিযানে মুন্সীগঞ্জের মুক্তারপুর নৌ পুলিশ ফাঁড়ি ৬ হাজার ৮০০ কেজি নিষিদ্ধ ঘোষিত জাটকা এবং জাটকা ধরার কাজে ব্যবহৃত ২টি ট্রলার জব্ধ করে।  

নৌ পুলিশের ট্রেনিং, লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া বিভাগের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাথী রানী শর্মা, ডিএমপি নিউজকে বলেন, রবিবার (১৮ এপ্রিল ২০২১) বাংলাদেশ নৌ পুলিশের দুটি দল চাদঁপুর ও মুন্সিগঞ্জ এলাকায় মেঘনা নদীতে পৃথক দুটি অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করে।

তিনি বলেন, উদ্ধারকৃত জাটকা স্থানীয় এতিমখানা এবং গরীব- দুঃখীদের মাঝে বিতরন করা হয়েছে এবং জাটকা ধরার জালগুলো প্রশাসন ও মৎস্য বিভাগের নির্দেশে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রুজু হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, জাটকা নিধন প্রতিরোধ অভিযান পরিচালনা প্রসঙ্গে নৌ পুলিশ প্রধান মোঃ আতিকুল ইসলাম বিপিএম(বার), পিপিএম (বার) বলেছেন,“ গত বছরের মতো এবছরও  নৌ পুলিশ কর্তৃক এ সকল ধারাবাহিক  অভিযানের ফলে একদিকে যেমন ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে তেমনি অন্যদিকে জনসাধারনের কাছে ইলিশ সহজলভ্য হওয়ার পাশাপাশি বাংলাদেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখবে। কাংক্ষিত লক্ষ্যে না পৌঁছা পর্যন্ত বাংলাদেশের GI (Geographical Indicator) হিসেবে খ্যাত বাংলার রুপালি ইলিশ সংরক্ষনে নৌ পুলিশের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।”

প্রসঙ্গত, মার্চ-এপ্রিল এই দুই মাস জাটকা সংরক্ষণকালে নদীতে সবধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে সরকার। একই সঙ্গে জাটকা বিক্রয়, পরিবহন ও মজুদও নিষিদ্ধ করা হয়েছে।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *