অলিম্পিকে দেখা যেতে পারে টি-১০ সংস্করণ


অলিম্পিকে দেখা যেতে পারে টি-১০ সংস্করণ

অবশেষে হয়ত ইয়ন মরগান, ক্রিস গেইলদের দাবিই বাস্তবায়ন হবে কিন্তু তাদের আর খেলা হবে না! ভারত সম্মতি দেওয়ার পর থেকেই জোরাল হয়েছে অলিম্পিকে ক্রিকেট অন্তর্ভুক্তির কার্যক্রম। আইসিসির বর্তমান পরিকল্পনা অনুযায়ী টি-১০ সংস্করণ দিয়েই অলিম্পিকে ক্রিকেটের প্রত্যাবর্তন হতে পারে।

অলিম্পিকে দেখা যেতে পারে টি-১০ সংস্করণ (1)

গত শুক্রবারেই (১৬ এপ্রিল) অ্যাপেক্স কাউন্সিলের সভায় বিসিসিআই সিদ্ধান্ত নেয় ভারতীয় দলকে অলিম্পিকে পাঠানোর। তারপরই আরও সরব হয়েছে অলিম্পিকে ক্রিকেট যুক্ত করার জন্য আইসিসির কার্যক্রম। বিসিসিআই ও ইসিবিকে এই কাজে সক্রীয়ভাবে পাশে পাচ্ছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি।

Also Read – আইপিএল খেলতে অনুপস্থিত সাকিব : মুমিনুল যা বলছেন

ক্রিকেটভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ক্রিকইনফোর তথ্যমতে অলিম্পিকে যুক্ত হতে পারে টি-১০ সংস্করণ। যেহেতু এই সংস্করণ আয়োজনে সময় কম লাগে তাই এটিই আয়োজিত হওয়ার সম্ভাবনাও বেশি। আইসিসিও যেভাবে এগোচ্ছে তাতে টি-১০ সংস্করণ দিয়েই আবার অলিম্পিকে ক্রিকেটের দ্বার খুলতে পারে।

অলিম্পিকে একবারে শুরুতে ক্রিকেট ছিল। কিন্তু পরে তা বন্ধ হয়ে যায়। একশ বছরেরও বেশি সময় পরে আবার অলিম্পিকে ক্রিকেট ফেরানোর তোড়জোড় শুরু হয়েছে। ২০২৮ সালের লস অ্যাঞ্জেলস অলিম্পিকেই ক্রিকেট যুক্ত করার চেষ্টা করছে আইসিসি। তবে লস অ্যাঞ্জেলসে সম্ভব না হলেও ২০৩২ সালে অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে ক্রিকেট যুক্ত করার সিদ্ধান্ত উপযুক্ত হবে।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালেই অলিম্পিকে টি-১০ সংস্করণ যুক্ত করার দাবি জানিয়েছিলেন মরগান। তিনি বলেছিলেন, ‘ক্রিকেটের অন্য তিন সংস্করণ চেয়েও টি–১০ সংস্করম অলিম্পিক বা কমনওয়েলথ গেমসের মতো ক্রীড়া আসরের জন্য খুবই আকর্ষণীয় হতে পারে। এর মূল কারণ টি–১০ ক্রিকেটের পুরো আয়োজনটি আপনি ১০ দিনের মধ্যে সেরে ফেলতে পারেন।’

২০২১ সালের শুরুতে গেইলও একই দাবি করেছিলেন।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: