টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শেষ সিরিজে কঠিন পরীক্ষার সামনে বাংলাদেশ


টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শেষ সিরিজে কঠিন পরীক্ষার সামনে বাংলাদেশ

টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স বেশ নাজুক। লাল বলের সাথে এদেশের ক্রিকেটের ঘনিষ্ঠতা  খুব বেশি নয়। প্রথমত, সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং ফরম্যাটের সিরিজ। দ্বিতীয়ত, সাকিব-মুস্তাফিজের অনুপস্থিতি। সব মিলিয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ বাংলাদেশের জন্য এক কঠিন পরীক্ষা। ফাইনালের আগে এটাই আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শেষ সিরিজ। 

দুইবার নেমে লিটনের অর্ধশতক, বল হাতে উজ্জ্বল মিরাজ

মঙ্গলবার সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে পাল্লেকেলে আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে শুরু হবে শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের মধ্যকার সিরিজের প্রথম ম্যাচ। নজিরবিহীনভাবে ম্যাচের আগেরদিন দুই দল ঘোষণা করেছে নিজেদের চূড়ান্ত স্কোয়াড।

Also Read – চেন্নাইয়ের জার্সিতে ধোনির ‘ডাইভ’ দেখে ক্ষোভের আগুনে পুড়ছেন ভারতীয়রা

শ্রীলঙ্কার উইকেটে সাধারণত ছড়ি ঘুরিয়ে থাকেন স্পিনাররা। সেক্ষেত্রে স্পিনিং উইকেটে খেলে অভ্যস্ত বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের লঙ্কান উইকেটের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে সমস্যা হওয়ার কথা নয়। তবে ম্যাচের এক দিন আগে জানা গেছে, পেসারদের সুবিধা দেওয়ার কথা মাথায় রেখেই সাজানো হয়েছে পিচ। চোটের কারণে এ সিরিজে থাকবেন না ২৪ বছর বয়সী লঙ্কান স্পিনার লাসিথ এম্বুলদেনিয়া, যিনি নিকট অতীতে লঙ্কানদের স্পিন আক্রমণের নেতার ভূমিকায় ছিলেন। সফরকারীদের থাকবেন না দিলরুয়ান পেরেরাও। তবে বাংলাদেশের জন্য হুমকি হতে পারেন দুই রিস্ট স্পিনার ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা আর লক্ষ্মন সান্দাকান।

২১ সদস্যের দল নিয়ে শ্রীলঙ্কা গিয়েছে বাংলাদেশ। আইপিএল খেলার কারণে এ সিরিজ থেকে ছুটি নিয়েছেন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান এবং বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। এ সিরিজে বাংলাদেশকে কিছুটা আত্মবিশ্বাস দিতে পারে ২০১৭ সালের স্মৃতি। নিজেদের শততম টেস্টে লঙ্কানদের তাদের মাটিতেই হারিয়েছিল বাংলাদেশ। বিগত পাঁচ বছরে দেশের বাইরে বাংলাদেশের এটিই একমাত্র টেস্ট জয়। যদিও সেই টেস্ট জয়ে বড় ভূমিকা রাখা সাকিব, মুস্তাফিজ ও মোসাদ্দেকের কেউ নেই এ সফরে।

সর্বশেষ সিরিজে নিজেদের দেশের মাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় টেস্টে ব্যাট হাতে লড়াকু মনোভাব প্রদর্শন করেছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। সাকিব না থাকায় এ অলরাউন্ডারের ব্যাটিংয়ের ওপর আস্থা রেখে তাকে দুই-এক অবস্থান ওপরে নামানোর কথা চিন্তা করতেই পারে বাংলাদেশ।

ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে এ সিরিজের গুরুত্ব না থাকলেও সাকিবের অনুপস্থিতি মিরাজদের জন্য বড় সুযোগ। এছাড়া নতুন পেসারদেরও নিজেদের প্রমাণ করার মঞ্চ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশ প্রশ্নবিদ্ধ করেছে বাংলাদেশের টেস্ট খেলার সামর্থ্যকে। সেই ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে নবীনরা ফুরফুরে মেজাজে আগ্রাসী ও ইতিবাচক ক্রিকেট খেলাটাই বাংলাদেশের সমর্থকদের প্রত্যাশা। কিন্তু এ শিক্ষা প্রক্রিয়া মুমিনুলবাহিনীর জন্য কতটা দীর্ঘমেয়াদী হবে সেটাই দেখার বিষয়।

তবে ফিল্ডিংয়ের কথা ভুলে গেলে চলবে না।  গত মাসের নিউজিল্যান্ড সফরের চরম বাজে ফিল্ডিং এ সিরিজে থাকলে যে দলের বেহাল অবস্থা অনিবার্য।

একনজরে দুই দলের সম্ভাব্য একাদশ 

শ্রীলঙ্কা : দিমুথ করুনারত্নে (অধিনায়ক), লাহিরু থিরিমান্নে, ওশাদা ফার্নান্দো/পাথুম নিসাঙ্কা, দীনেশ চান্দিমাল, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, নিরোশান ডিকওয়েলা (উইকেটরক্ষক), ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, সুরাঙ্গা লাকমল, লাহিরু কুমারা, বিশ্ব ফার্নান্দো।

বাংলাদেশ : তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, এবাদত হোসেন চৌধুরী ও আবু জায়েদ রাহী।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: