হেফাজত নেতা খুরশিদ কাসেমী ও আতাউল্লাহ আমীন গ্রেফতার


সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সহকারী মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর শাখার সহসভাপতি এবং বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমীর খুরশিদ আলম কাসেমীকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এছাড়া হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক, ঢাকা মহানগরীর সহসাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব আতাউল্লাহ আমীনকে গ্রেফতারের তথ্যও স্বীকার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব)।

বুধবার (২১ এপ্রিল) বিকেল ৫টার দিকে মোহাম্মদপুরের বাসা থেকে সাদা পোশাকে থাকা কিছু ব্যক্তি তাকে আটক করে নেয়। পরে ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম জানান, তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মাহবুব আলম বলেন, সাম্প্রতিক নাশকতা ও ২০১৩ সালের নাশকতার মামলায় খুরশিদ আলম কাসেমীর সম্পৃক্ততা রয়েছে। এ কারণে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) তাকে আদালতে হাজির করা হবে।

এদিকে, মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) বিকেলে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক, ঢাকা মহানগরী শাখার সহসাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব আতাউল্লাহ আমীনকে মোহাম্মদপুর থেকে সাদা পোশাকে একটি দল আটক করে নিয়ে যায়। মঙ্গলবার ডিবি বা অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কেউ তাকে গ্রেফতারের তথ্য স্বীকার করেনি। পরে বুধবার র‌্যাব জানিয়েছে, তারা আতাউল্লাহকে র‌্যাব আটক করেছে।

র‌্যাব সদর দফতর থেকে বুধবার দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বার্তায় বলা হয়েছে, পল্টন থানার একটি মামলার আসামি আতাউল্লাহকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ (বুধবার) তাকে পল্টন থানায় হস্তান্তরও করা হয়েছে।

এর আগে, গত ২৬ মার্চ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর দিন থেকে শুরু করে পরবর্তী আরও দুই দিন দেশের বিভিন্ন স্থানে হেফাজতে ইসলামের নাশকতার বেশকিছু ঘটনা ঘটে। এসব ঘটনায় ঢাকা, চট্টগ্রাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে দায়ের করা অন্তত ১৮টি মামলা তদন্ত করছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

এসব মামলায় গত কয়েকদিনে হেফাজতের হেভিওয়েট নেতা মামুনুল হকসহ অন্তত একডজন কেন্দ্রীয় নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বেশ কয়েকজনকেই এরই মধ্যে রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত।

সারাবাংলা/ইউজে/টিআর





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *