সাদমানকে রেখে সাইফকে নেওয়ার কারণ জানালেন ডমিঙ্গো


সাদমানকে রেখে সাইফকে নেওয়ার কারণ জানালেন ডমিঙ্গো

নিজের সর্বশেষ টেস্টে হাঁকিয়েছিলেন ফিফটি। নিন্দুকদের অনেকে রসিকতা করে প্রায়ই বলেন- বাংলাদেশের জার্সিতে এক ম্যাচে পঞ্চাশ ছাড়ানো স্কোর মানেই পরের কয়েক ম্যাচে একাদশে নিশ্চিত। সমালোচকদের উপহাস মেনে না নিলেও সাদমান ইসলাম একাদশে সুযোগ পাওয়া যোগ্য, তাতে দ্বিমত জানাবেন না কেউই।

সাদমানকে রেখে সাইফকে নেওয়ার কারণ জানালেন ডমিঙ্গো
সংবাদ সম্মেলনে রাসেল ডমিঙ্গো।

অথচ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের একাদশে ঠাই হয়নি সাদমানের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্ট খেলার পর কোনো ম্যাচ খেলেননি সাদমান। যে চোটের কারণে দীর্ঘ সময় ধরে মাঠের বাইরে, সেই চোটও নাকি এখনও সারেনি। এজন্যই সাদমানকে একাদশে নেওয়া হয়নি- দাবি প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর।

আর সাদমান না থাকায় তার জায়গায় নেওয়া হয়েছে তরুণ ওপেনার সাইফ হাসানকে। বিবেচনা করা হয়েছে ইমার্জিং দলের হয়ে সাদমানের পারফরম্যান্সও। এছাড়া টিম ম্যানেজমেন্ট ভেবেছে ডানহাতি-বাঁহাতি কম্বিনেশনের বিষয়টিও।

Also Read – ‘৫২০’ রান করলেই সন্তুষ্ট ডমিঙ্গো

ডমিঙ্গো বলেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অর্ধশতকের পর সাদমান আর খেলেনি। আঙুলে চোট আছে ওর। সাইফ সম্প্রতি ভালো করেছে। টপ অর্ডারে বাঁহাতি-ডানহাতি কম্বিনেশনও সুন্দর দেখায়। আমাদের শীর্ষ চারে বেশিরভাগই তো বাঁহাতি।’

সাদমান একাদশে না থাকায় অনেকেই ভেবেছিলেন, টিম ম্যানেজমেন্টের বিবেচনার বাইরে চলে গেলেন কি না এই বাঁহাতি ওপেনার। ডমিঙ্গো অবশ্য আশ্বস্ত করলেন, টেস্টের বিবেচনায় সাদমান আছেন পাকাপোক্তভাবেই।

তিনি জানান, ‘সাদমান ভালোভাবেই বিবেচনায় আছে। হাতে কিছু অপশন থাকা ভালো। তার ব্যাপারটা আমি বুঝতে পারছি। দুই আড়াই মাস হল ম্যাচ খেলছে না। তাই নামার আগে একটু প্রস্তুত হয়ে ওঠা উচিৎ।’

এক বছরেরও বেশি সময়ের বিরতির পর নিজের তৃতীয় ম্যাচ খেলতে নামা সাইফ অবশ্য সামর্থ্যের প্রমাণ রাখতে পারেননি। মায়ের দেশ শ্রীলঙ্কায় তার দল দারুণ ব্যাটিং করলেই প্রথম ইনিংসে সাদমান সাজঘরে ফিরেছেন কোনো রান না করেই। টেস্টে এখন পর্যন্ত চার ইনিংস খেললেও সাদমানের ব্যাট এখনও হাসেনি, যদিও ঘরোয়া ও বয়সভিত্তিক পর্যায়ে নিজেকে প্রমাণ করেই জায়গা করে নিয়েছেন জাতীয় দলে।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *