latest

ফ্লাডলাইট না জ্বালিয়ে খেলা বন্ধ রাখায় অবাক ডমিঙ্গো


ফ্লাডলাইট না জ্বালিয়ে খেলা বন্ধ রাখায় অবাক ডমিঙ্গো

শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের মধ্যকার দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে বাধ সেধেছে প্রকৃতি। দ্বিতীয় দিন খেলা হয়েছে ৬৫ ওভার, নির্ধারিত ৯০ ওভারের চেয়ে ২৫ ওভার কম। এত ওভার কম খেলার পেছনে শুধু বৃষ্টিই নয়, দায় আছে আলোকস্বল্পতারও।

ফ্লাডলাইট না জ্বালিয়ে খেলা বন্ধ রাখায় অবাক ডমিঙ্গো
বৃষ্টি থামলেও আলোক স্বল্পতার কারণে বল আর মাঠে গড়ায়নি। ছবি : শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট

এতে স্বভাবতই কথা উঠছে- পাহাড়-সমুদ্র ঘেঁষা পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামে আলোর যেহেতু কমতিই ছিল, তাহলে ফ্লাডলাইট ব্যবহার করলেও হত! দিবারাত্রির টেস্ট না হলে টেস্টে ফ্লাডলাইটের ব্যবহার প্রয়োজন নেই। কিন্তু আলোক স্বল্পতার কারণে চাহিদা অনুযায়ী ফ্লাডলাইট ব্যবহারের নজির আছে অনেক।

দারুণ ছন্দে ব্যাট করতে থাকা বাংলাদেশ ইনিংসটাকে আরও বেশিদূর নিতে পারত, যদি ২৫ ওভার খেলা নষ্ট না হত। তৃতীয় দিন ম্যাচের প্রথম ইনিংস বেশিক্ষণ চালিয়ে যাওয়া সমীচীন নয়। হাজারো সমর্থকের মনে তাই প্রশ্ন, কেন ফ্লাডলাইট জ্বালিয়ে খেলা চালিয়ে যাওয়া হল না।

Also Read – দেবদূত-কোহলির ব্যাটিং তাণ্ডবে মুস্তাফিজদের ‘১০’ উইকেটের পরাজয়

মূলত ফ্লাডলাইট বা মাঠের সুযোগ-সুবিধাদির ব্যবহারের বিষয় নির্ধারিত থাকে খেলা শুরুর আগেই। সিরিজ শুরুর আগেই নিয়ম করা হয়েছিল, আলোক স্বল্পতা হলেও ফ্লাডলাইটের ব্যবহার করা যাবে না। সেই নিয়মের কারণেই লঙ্কান্দের বিপক্ষে পড়ন্ত বিকেলে রানের চূড়ায় ওঠার সুযোগ পায়নি বাংলাদেশ।

নিয়মটি সিরিজ শুরুর আগে থেকে জানলেও অবাক বাংলাদেশের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। যে ম্যাচে প্রথম ইনিংসেই হাতছানি দিচ্ছে জয়ের স্বপ্ন, সেই ম্যাচে ২৫ ওভার পণ্ড হওয়া তো আর স্বস্তিকর বিষয় নয়। তবে নিয়মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল ডমিঙ্গো বিষয়টি মেনে নেওয়ার পক্ষে।

শ্রীলঙ্কা থেকে মুঠোফোনে বললেন, ‘অবাক হলাম যে আমরা এমন পরিস্থিতিতেও ফ্লাডলাইট ব্যবহার করতে পারিনি। তবে যা-ই হোক, এই নিয়ম তো দুই দলের জন্যই প্রযোজ্য! সিরিজ শুরুর আগেই জানানো হয়েছিল।’

দ্বিতীয় দিন শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ৪৭৪ রান জড়ো করেছে বাংলাদেশ। সংবাদ সম্মেলনে ডমিঙ্গো জানিয়েছিলেন, শিষ্যরা ৫২০ রানের মত জড়ো করতে পারলেই সন্তুষ্ট থাকবেন। বৈরি আবহাওয়া বাধা না দিলে হয়ত আরও বড় রানের প্রত্যাশা করত সফরকারী দল।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *