গরমে তরমুজ খেলে যে উপকার


ডিএমপি নিউজ: চলছে গ্রীষ্মকাল। গরমে নাকাল দেশবাসী। কোন না কোন এলাকায় প্রতিনিয়ত তাপমাত্রার রেকর্ড হচ্ছে। গরমে কিছুটা হলেও স্বস্তি দেবে মৌসুমের রসালো ফল তরমুজ। গবেষক ও পুষ্টিবিদেরা বলেন, ১০০ গ্রাম তরমুজে ৩০ ক্যালরি থাকে। রসালো, সুস্বাদু এই ফলটি যেমন আকারে বড় তেমনি এর গুণও অনেক। একনজরে দেখে নেওয়া যাক গরমে তরমুজ কেন উপকারী-

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: তরমুজে রয়েছে পটাশিয়াম ম্যাগনেশিয়াম ও ভিটামিন বি যা আমাদের দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। তরমুজ আমাদের দেহের ভেতর তৈরি হওয়া টক্সিনকে দূর করে, ফলে শরীর চাঙ্গা থাকে।

শরীরে পানির ঘাটতি দূর করে: তরমুজে প্রচুর পরিমাণে পানি আছে। গরমে আমাদের দেহ থেকে ঘামের মাধ্যমে প্রচুর পানি বের হয়। ফলে এই সময় শরীরে পানির যে ঘাটতি তৈরি হয় তা পূরণ করে তরমুজ। শরীর সুস্থ ও সতেজ থাকে।

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় ও শুষ্কতা দূর করে: তরমুজের মধ্যে যে জৈব অ্যাসিড আছে তা ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে। তরমুজে রয়েছে ময়েশ্চারাইজিং ক্ষমতা, যা ত্বকের প্রাকৃতিক ময়েশ্চার ধরে রাখে। তরমুজের রস খেলে সূর্যের তাপে ত্বক যে ক্ষতিগ্রস্থ হয়, তার থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। রোদে পোড়া ত্বকে তরমুজের রস মাখলে ভাল ফল পাবেন।

ওজন কমাতে সাহায্য করে: তরমুজে প্রচুর পরিমানে পানি এবং অল্প পরিমাণে ক্যালোরি থাকায় পেটপুরে এই ফল খাওয়া যায়। এর ফলে খিদে থেকে মুক্তি মেলে, আর ওজন সেভাবে বাড়ে না।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে ও হৃদযন্ত্রে রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক রাখে: তরমুজ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। আবার এই ফলটি হৃদযন্ত্রের জন্যও ভাল। হৃদযন্ত্রে সঠিকভাবে রক্ত সঞ্চালন করতে সাহায্য করে। এতে হৃদযন্ত্র ‘ব্লক’ হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

কিডনির জন্য উপকারী: তরমুজ কিডনির জন্য উপকারী একটি ফল। এটি কিডনি ও মুত্রথলিকে বর্জ্যমুক্ত করে। কিডনিতে পাথর হলে চিকিৎসকরা ডাবের জল, তরমুজ খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

স্ট্রেসজনিত সমস্যা সমাধান করে: তরমুজে ফ্ল্যাভোনয়েড, ক্যারটিনয়েড, ট্রিটেপেনইডিস এবং ফেনোলিক-এর মতো যৌগ রয়েছে। এগুলো শরীরের ব্যথা, যন্ত্রণা কমাতে সাহায্য করে। তরমুজের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ তরমুজ খেলে স্ট্রেসজনিত অসুস্থতাও কমে যায়।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: