latest

‘১৭২০’ ক্রিকেটারকে দুই কোটি টাকা দিচ্ছে বিসিবি


‘১৭২০’ ক্রিকেটারকে দুই কোটি টাকা দিচ্ছে বিসিবি

দেশে চলছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের তাণ্ডব। বাধ্য হয়ে আরোপ করা হয়েছে লকডাউন। অনেকটা অচলাবস্থা পুরো দেশ জুড়ে। যথারীতি স্থবির হয়ে পড়েছে ক্রিকেট অঙ্গনও।

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ তামিম একাদশ নাজমুল একাদশ
শীর্ষ পর্যায়ের ঘরোয়া টুর্নামেন্টের চুক্তিহীন ক্রিকেটাররাও পাবেন এই অনুদান। ফাইল ছবি

এমন পরিস্থিতিতে বিপাকে পড়েছেন ক্রিকেটাররা। ঘরোয়া টুর্নামেন্টগুলো বন্ধ হয়ে যাওয়ায় খেলা থেকে দূরে শীর্ষস্থানীয় ক্রিকেটাররাও। নিকট অতীতে অনেকে বিভিন্ন টুর্নামেন্টে ভাড়ায় খেলে টাকা উপার্জন করলেও এখন সেই সুযোগও নেই। ফলে ক্রিকেটার পাড়ার এক বড় অংশ এখন দুশ্চিন্তা আর উদ্বেগে নিমগ্ন।

এমন পরিস্থিতিতে তাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। দেশের মোট এক হাজার ৭২০ জন ক্রিকেটার দুই কোটি টাকা অনুদান দেওয়া হচ্ছে।

Also Read – ভাগ্য বদলাতে অধিনায়ক পরিবর্তন হায়দরাবাদের

এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, পুরুষ ক্রিকেটারদের যারা বোর্ডের চুক্তিতে নেই তারা পাবেন এই আর্থিক সহযোগিতা। এছাড়া পাবেন চুক্তিতে থাকা নারী ক্রিকেটাররাও। মোট এক হাজার ৪৩২ জন পুরুষ ও ২৮৮ জন নারী ক্রিকেটারের মধ্যে বিতরণ করা হবে মোট ২ কোটি টাকা।

মূলত করোনার কারণে ঘরোয়া ক্রিকেট বন্ধ হয়ে পড়ায় এই উদ্যোগ বিসিবির। বিসিবির অধীনে যেসব টুর্নামেন্ট হয়ে থাকে, সেগুলো সহসাই মাঠে গড়ানোর সম্ভাবনা নেই। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ, ঢাকা প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বিভাগ লিগ, প্রমীলা জাতীয় লিগ, ইমার্জিং ও অনূর্ধ্ব-১৯ দল, প্রমীলা প্রিমিয়ার ডিভিশন ও প্রথম বিভাগ লিগের ক্রিকেটাররা এই অনুদান পাবেন।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণে দেশজুড়ে বিরাজ করছে আতঙ্ক। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পাশাপাশি জনসমাগম এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। করোনার প্রকোপ বাড়লে বন্ধ হয়ে যায় জাতীয় ক্রিকেট লিগসহ (এনসিএল) দেশের সব ধরনের ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ও ক্রিকেটীয় কার্যক্রম। চলতি মাসের শুরুতে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ শুরু হওয়ার কথা থাকলেও করোনার কারণে ফের এই গুরুত্বপূর্ণ লিগ স্থগিতাদেশ পেয়েছে। তবে টাইগারদের জিম্বাবুয়ে সফরের আগেই প্রিমিয়ার লিগ আয়োজন করতে চায় বিসিবি।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *