বাংলাদেশে কাজ করতে উপভোগ করছেন ডমিঙ্গো


বাংলাদেশে কাজ করতে উপভোগ করছেন ডমিঙ্গো

রাসেল ডমিঙ্গোকে নিয়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গনে আছে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ক্ষোভ। তবে বাংলাদেশে কাজ করতে তিনি ঠিকই উপভোগ করছেন। শ্রীলঙ্কায় সিরিজ হলে হতাশ হলেও সেখান থেকে ইতিবাচক দিকটি খুঁজে নিচ্ছেন তিনি।

বাংলাদেশে কাজ করতে উপভোগ করছেন ডমিঙ্গো
রাসেল ডমিঙ্গো

গত ৩ মাস ধরে দেশ কিংবা বিদেশের মাটি, সব জায়গাতেই টানা হারের বৃত্তে ঘুরছে বাংলাদেশ দল। দলের এই বিপদের মুখে সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাসহ অনেকেই প্রধান কোচ ডমিঙ্গোকে নিয়ে সমালোচনা করেছেন। কিন্তু ডমিঙ্গো নিজে তো টাইগারদের সাথে, এই ব্যবস্থায় কাজ করতে উপভোগ করছেন। শ্রীলঙ্কা থেকে বাংলাদেশে ফেরার পরে বিমানবন্দরে তিনি বলেন,

‘না, না, না কোনো চিন্তা না। আমি এখানে কাজ করাটা উপভোগ করছি, এখানকার ব্যবস্থায় কাজ করাটা উপভোগ করছি। কিন্তু অবশ্যই আপনাকে আপনার কাজটা শেষ করতে হবে। আমি মনে করি বাংলাদেশে দলের অধীনে ঘরোয়া ক্রিকেট ও খেলোয়াড়দের কাজের সুযোগ সুবিধার দিকে কিছুটা নজর দিতে হবে।’

Also Read – দেশে ফেরার আগে একযোগে মালদ্বীপ যাচ্ছেন অজিরা

টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক বলেছিলেন, সিরিজ হারলেও সেখান থেকে ইতিবাচক দিক খুঁজে পাচ্ছেন তিনি। কোচের মুখেও ঝরেছে একই কথা। অধিনায়কের মতো কোচও টসের ফলাফলকে অজুহাত হিসেবে দাঁড় করিয়েছেন।

ডমিঙ্গো বলেন, ‘ইতিবাচক অনেক কিছুই আছে এই সফরে। আমি মনে করি ছেলেরা প্রথম টেস্টে বেশ ভালো করেছে। দ্বিতীয় টেস্ট বেশ কঠিন ছিল, আমি মনে করি সেখানে টস খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। তৃতীয় দিন এসে বল টার্ন করা শুরু করে, ছেলেরা বিশেষ করে বোলাররা তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছে। সফরের ফলাফল আমাদের পক্ষে কথা না বললেও ইতিবাচক অনেক কিছুই আছে নেয়ার মত।’

ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের থেকে শ্রীলঙ্কা সিরিজে দলের উন্নতি হয়েছে বলেও জানিয়েছেন কোচ। তার ভাষ্যমতে,

খুবই হতাশ। আমি যেটা বলতে চাই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টটাও আমরা আসলে খুব ভালো ক্রিকেট খেলেছি। শেষদিনে আমাদের কিছু বাজে সিদ্ধান্ত, সম্ভবত কিছু ভুলও ছিল, যা আমাদের হারতে বাধ্য করে। দ্বিতীয় টেস্টটাও কাছাকাছি হয়েছিল। শ্রীলঙ্কাতে প্রথম টেস্টটা ভালো খেলেছি। আমি কিছুটা উন্নতি দেখতে পারছি। সুতরাং এতা আমাকে কিছুটা খুশি করছে।

আরও ভালো করতে খেলোয়াড়দের সাথে যোগাযোগ মুজবতে কাজ করছেন ডমিঙ্গো, ‘আমি সেই দিকগুলো ঘুরে দেখব বলে মনে করি। আর অবশ্যই কিছু কঠিন সময় গিয়েছে আমাদের, আমি খেলোয়াড়দের সাথে যোগাযোগ বাড়ানো নিয়ে কাজ করছি। আর সাফল্য পাওয়ার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী।’

 



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: