‘৫ কোটি মানুষের দারিদ্র্য উন্নয়ন নয় ব্যর্থতার নির্দেশক’


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেছেন, কয়েক কোটি মানুষকে প্রচন্ড দুর্যোগের মধ্যে ঠেলে দিয়ে, বহুতল বিল্ডিং বা ফ্লাইওভার কোনো দেশের উন্নয়নের মাপকাঠি হতে পারে না।

মঙ্গলবার (৪ মে) জেএসডি’র স্থায়ী কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আ স ম আবদুর রব বলেন, দেশের পাঁচ কোটি মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে অবস্থান করছে। ৩০ লাখের বেশি বিশ্ববিদ্যালয় গ্রাজুয়েশন করা ছাত্র বেকার। প্রতি চারজন শিশুর একজন অপুষ্টির শিকার তারপরও রাষ্ট্রীয় অর্থের অপচয় করে উন্নয়নের ঢাকঢোল পেটানো সাধারণ মানুষের সাথে রসিকতার নামান্তর।

তিনি বলেন, নিরন্ন মানুষের হাহাকার, কর্মক্ষম যুবকদের বেকারত্বের অভিশাপে প্রমাণ হয়েছে সরকারের তথাকথিত ‘উন্নয়ন’ প্রকৃতপক্ষে সরকারের ‘ব্যর্থতার’ নির্দেশক। মা অভাবের তাড়নায় নবজাতককে রাস্তায় ফেলে যাচ্ছে – এগুলো সমাজ উন্নয়নের প্রতিফলন নয়।

তিনি আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধ সংগঠিত হয়েছিল দারিদ্র্য বিমোচনের জন্য, উন্নয়নের নামে বৈষম্যের জন্য নয়। দেশের সম্পদ গুটিকয়েক মানুষের কাছে কেন্দ্রীভূত করে, দুর্নীতির মাধ্যমে অতি দ্রুত ধনী হওয়ার তালিকায় বিশ্বের প্রথম হওয়া কোনোক্রমেই জাতির জন্যে গৌরবজনক নয়। চর দখলের ন্যায় ক্ষমতায় এসে ফ্যাসিবাদ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সরকার দুর্নীতি ও অপচয় নিয়ন্ত্রণে সক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছে।

সমাজের সকল স্তরের মানুষের অংশগ্রহণে সম্মতিভিত্তিক গণমুখী সরকার প্রতিষ্ঠা করতে পারলে দেশে আরও দ্রুততর গতিতে আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও দারিদ্র্যসহ সকল অভিশাপ স্বল্পতম সময়ের মধ্যে নির্মূল করার বিপুল সুযোগ সৃষ্টি হবে, বলে উল্লেখ করেন আ স ম রব।

তিনি বলেন, এ সব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় রাষ্ট্রে আমূল সংস্কার দরকার। রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠানগুলোসহ প্রশাসন, অর্থনৈতিক ও আর্থিক অবকাঠামোগুলোতে সর্বোপরি সামাজিক সংস্কৃতিতে মৌলিক পরিবর্তন আনতে হবে। এ লক্ষ্যে বৃহত্তর গণআন্দোলন গড়ে তুলে গণঅভ্যুত্থানের মাধ্যমে ‘জাতীয় সরকার’ গঠন করে রাষ্ট্রীয় সংস্কার সাধন করতে হবে।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, স্থায়ী কমিটির সদস্য সা কা ম আনিসুর রহমান খান, মো. সিরাজ মিয়া, মিসেস তানিয়া রব, শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, এ্যাড. আবদুর রহমান মাস্টার, বাবু হিরালাল চক্রবর্তী, আবদুল জলিল চৌধুরী, এ্যাড. মাহমুদুর রহমানসহ আরও অনেকে।

সারাবাংলা/এএইচএইচ/একেএম





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: