খালেদা জিয়ার অবস্থা স্থিতিশীল


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: এভারকেয়ার হাসপাতালে করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অবস্থা অপরিবর্তিত রয়েছে বলে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত চিকিতসক অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন।

মঙ্গলবার (৪ মে) রাতে এভারকেয়ার হাসপাতালের সামনে অপেক্ষমান সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

অধ্যাপক ডা. জাহিদ বলেন, ‘খালেদা জিয়ার যেসব পরীক্ষা গতকাল করানো হয়েছিল এবং আজকে সকালে করানো হয়েছে, সেগুলো রিভিউ করেছেন মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে তার চেস্ট দেখছেন। কিছু ট্রিটমেন্ট অ্যাডজাস্টমেন্ট করছেন এবং সেই অনুযায়ী উনার চিকিৎসা চলছে।’

খালেদা জিয়ার অবস্থা স্থিতিশীল

তিনি বলেন, ‘আমি কিছুক্ষণ আগেও তার সঙ্গে দেখা করেছি। আল্লাহ অশেষ মেহেরবানিতে উনি গতকাল যে অবস্থায় ছিলেন, এখনো সেই অবস্থাতেই আছেন। উনার চিকিৎসা চলছে।’

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পর গত ১১ এপ্রিল থেকে গুলশানের ভাড়া বাসা ‘ফিরোজা’য় ব্যক্তিগত চিকিৎসক টিমের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন খালেদা জিয়া। ১৪ দিন পর আবার পরীক্ষা করা হলে তখনো তার করোনাভাইরাস পজিটিভ আসে। এর পর গত ২৭ এপ্রিল এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। ভর্তির পরের দিনই তার জন্য ১০ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

সোমবার (৩ মে) সকালের দিকে শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে চিকিৎসকরা বিকেলে খালেদা জিয়াকে সিসিইউতে স্থানান্তর করেন। এভারকেয়ার হাসপাতালে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. শাহাবুদ্দিন তালুকদারের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা নিচ্ছেন খালেদা জিয়া।

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পর পরিবারের আবেদনে গত বছর ২৫ মার্চ ‘মানবিক বিবেচনায়’ শর্তসাপেক্ষে খালেদা জিয়াকে সাময়িক মুক্তি দেয় সরকার। তখন থেকে তিনি গুলশানে নিজের ভাড়া বাসা ফিরোজায় ছিলেন। ব্যক্তিগত চিকিৎসক, পরিবারের সদস্য এবং দলের কয়েকজন শীর্ষ নেতা ছাড়া বাইরের কারও সঙ্গে যোগাযোগ ছিল না ৭৫ বছর বয়সী খালেদা জিয়ার।

সারাবাংলা/এজেড/টিআর





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: