ম্যাচের প্রস্তুতি ছাড়াই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ


ম্যাচের প্রস্তুতি ছাড়াই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ সর্বশেষ টেস্ট খেলেছে গত এপ্রিলে-মে মাসে। শ্রীলঙ্কার মাটিতে দুই ম্যাচের সেই টেস্ট সিরিজে হেরেছিল টাইগাররা। জুলাইয়ে জিম্বাবুয়ের মাটিতে একটি টেস্ট খেলবে মুমিনুল হকের দল। তার আগে লাল বলে কোনো ম্যাচ খেলা হচ্ছে না ক্রিকেটারদের।

আমরা টেস্ট জিততে চাই, শিখতে চাই না লুইস

জিম্বাবুয়ে-বাংলাদেশ একমাত্র টেস্ট শুরু হওয়ার কথা ৭ জুলাই। চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ শেষ হবে ২৬ জুনের দিকে। ক্রিকেটাররা জিম্বাবুয়ে উড়াল দেবেন ২৯ জুন।

Also Read – আলাউদ্দিনের হ্যাটট্রিকে নাঈম-সাব্বিরদের স্বল্প পুঁজি

তবে নতুন নিয়ম অনুযায়ী, জিম্বাবুয়েতে গিয়ে ৫ থেকে ৭ দিন কোয়ারেন্টিন করতে হবে দলকে, যা আগে করার কথা ছিল না। কোয়ারেন্টিনের কারণে ৩ ও ৪ তারিখ লাল বলে দুই দিনের যে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা ছিল বাংলাদেশ দলের, তা হচ্ছে না। তাই ম্যাচ প্রস্তুতি ছাড়াই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলতে নামবে বাংলাদেশ।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এখন পর্যন্ত আমাদের কাছে যে তথ্য, সে অনুযায়ী স্বাভাবিকভাবে যেরকম হয়, ৫-৭ দিনের। এখন পর্যন্ত সেভাবেই আমরা কাজ করছি। চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্তে পরিবর্তন এলে সেটাও যুক্ত করা হবে।’

এফটিপি অনুযায়ী দুটি টেস্ট খেলার কথা থাকলেও দুই দল খেলবে একটি টেস্ট। ৭ জুলাই থেকে বুলাওয়েতে শুরু হবে একমাত্র টেস্ট। এই ম্যাচ দিয়েই শুরু হবে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ। টেস্ট শেষে দুই দল পাড়ি জমাবে হারারেতে। সেখানে অনুষ্ঠিত হবে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি। এর আগে তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টি-টোয়েন্টি খেলার কথা ছিল।

ওয়ানডে সিরিজের তিনটি ম্যাচ ১৬, ১৮ ও ২০ জুলাই এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজের তিনটি ম্যাচ ২৩, ২৫ ও ২৭ জুলাই অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। সফরে মোট সাতটি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ২০১৩ সালের পর এবারই প্রথম জিম্বাবুয়ে সফরে যাবে বাংলাদেশ দল।

একনজরে জিম্বাবুয়ে সফরের সূচি

একমাত্র টেস্ট – ৭-১১ জুলাই
১ম ওয়ানডে – ১৬ জুলাই
২য় ওয়ানডে – ১৮ জুলাই
৩য় ওয়ানডে – ২০ জুলাই
১ম টি-টোয়েন্টি – ২৩ জুলাই
২য় টি-টোয়েন্টি – ২৫ জুলাই
৩য় টি-টোয়েন্টি – ২৭ জুলাই



Source link