মামুনুল বাদ, জায়গা পেলেন শফীর ছেলে


সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের জেরে হেফাজতে ইসলামের নতুন কমিটি থেকে বাদ পড়েছেন বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম-মহাসচিব মামুনুল হক। তবে সংগঠনের প্রয়াত আমির আহমদ শফীর বড় ছেলে ইউসুফ মাদানী আগের কমিটিতে না থাকলেও এবার তাকে নতুন কমিটির সহকারী মহাসচিব করা হয়েছে।

কমিটি থেকে আরও বাদ পড়েছেন বিলুপ্ত যুগ্ম-মহাসচিব নাছির উদ্দিন মুনির, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী, কেন্দ্রীয় নেতা জাকারিয়া নোমান ফয়জী, খালিদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবী, হাসান জামিল, মুফতি হারুন ইজহারসহ বেশ কয়েকজন।

সোমবার (৭ জুন) বেলা ১১টায় খিলগাঁও মাখজানুল উলুম মাদ্রাসায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন এ কমিটি ঘোষণা করা হয়।

ঘোষিত নতুন কমিটির আমির জুনায়েদ বাবুনগরী এবং মহাসচিব নুরুল ইসলাম জিহাদী। এ ছাড়া কমিটিতে আতাউল্লাহ হাফেজ্জী, সালাউদ্দিন নানুপুরী, মিজানুর রহমান, মুহিব্বুল হক (সিলেট), আবদুল কুদ্দুসসহ (ফরিদাবাদ) কয়েকজনকে নায়েবে আমির হিসেবে রাখা হয়েছে। যুগ্ম মহাসচিব হিসেবে রয়েছেন সাজিদুর রহমান (ব্রাহ্মণবাড়িয়া), আবদুল আউয়াল (নারায়ণগঞ্জ) ও লোকমান হাকিম। সাংগঠনিক সম্পাদক মনোনীত হয়েছেন মীর ইদ্রিস।

গত বছরের ১৫ নভেম্বর জুনায়েদ বাবুনগরীকে আমির করে ১৫১ সদস্য বিশিষ্ট হেফাজতের কমিটি ঘোষণা করা হয়। সেখানে হেফাজতের প্রতিষ্ঠাতা আমির আহমদ শফীর দুই ছেলে ইউসুফ মাদানী ও আনাস মাদানীকে রাখা হয়নি।

হেফাজতের সমালোচিত নেতা মামুনুল হক রিমান্ড শেষে কারাগারে রয়েছেন। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ, সহিংসতার একাধিক মামলা রয়েছে। এ ছাড়া নারায়ণগঞ্জে রিসোর্টে এক নারী নিয়ে ধরা পড়ার পর সংগঠনে মামুনুল হকের অবস্থা নড়বড়ে হয়ে যায়। নানা সমালোচনার মুখে গত ২৬ এপ্রিল মধ্যরাতে কমিটি বিলুপ্ত করেন জুনায়েদ বাবুনগরী।

আহমদ শফীর অনুসারীদের সঙ্গে জুনায়েদ বাবুনগরীর বিরোধ থাকায় শফীর দুই ছেলে কমিটির বাইরে ছিলেন। অবশেষে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে হেফাজতের কমিটিতে আহমদ শফীর উত্তরসূরীর জায়গা হলো।

সারাবাংলা/একে





Source link