latest

তামিম ঝড়ের পর বিধ্বংসী মিঠুন, প্রাইম ব্যাংকের বড় পুঁজি


তামিম ঝড়ের পর বিধ্বংসী মিঠুন, প্রাইম ব্যাংকের বড় পুঁজি

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) চতুর্থ রাউন্ডের খেলায় মুখোমুখি হয়েছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ও পারটেক্স স্পোর্টস ক্লাব। প্রথমে ব্যাট করে প্রাইম ব্যাংক জড়ো করেছে বড় স্কোর।

তামিম ঝড়ের পর মিঠুনের ছক্কাবৃষ্টি, প্রাইম ব্যাংকের বড় পুঁজি
বোলারদের প্রতিহতের জন্য শক্ত পুঁজি জড়ো করেছে প্রাইম ব্যাংক। ফাইল ছবি

বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) ৩ নম্বর মাঠে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে প্রাইম ব্যাংক। অধিনায়ক এনামুল হক বিজয়ের পরিবর্তে এদিন রনি তালুকদারকে নিয়ে ওপেনিংয়ে নামেন দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল। ভালো শুরুর ইঙ্গিত দিয়েও দুটি চার হাঁকানো রনি সাজঘরে ফিরলেও ক্রিজে আসেন বিজয়।

তবে ওয়ান ডাউনে নেমেও নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি তিনি। টি-টোয়েন্টিতে টানা ১৮তম ইনিংসে অর্ধশতক তুলতে ব্যর্থ হয়ে সাজঘরে ফেরেন, তার আগে ২০ বলের মোকাবেলায় করেন ১৬ রান। তবে চমক দেখিয়েছেন মোহাম্মদ মিঠুন। তামিম ৪টি চার ও ২টি ছক্কায় ৩৩ বলে ৪৭ রান করে সাজঘরে ফিরলে পারটেক্সের বোলারদের ওপর চড়াও হন মিঠুন, হাঁকাতে থাকেন একের পর এক বাউন্ডারি।

Also Read – সোহান-জিয়ার টর্নেডো ইনিংস; সাকিবের স্পিন বিষে নীল আশরাফুল

সেই ধারাবাহিকতায় ৩১ বলে অর্ধশতক পূর্ণ করেন মিঠুন। তামিম ৩ রানের আক্ষেপে সাজঘরে ফিরলেও আক্ষেপ জাগাতে হয়নি মিঠুনকে। শেষপর্যন্ত ইনিংস সম্পন্ন করেই মাঠ ছাড়েন। তার আগে ৩৬ বলের মোকাবেলায় তিনটি করে চার-ছক্কা হাঁকিয়ে ৫৭ রান করে অপরাজিত থাকেন।

অন্যান্যদের মধ্যে আরাফাত সানি জুনিয়র ১৬ বলে ১৮ ও নাহিদুল ইসলাম ৫ বলে অপরাজিত ১৩ রান করেন। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে দলটির সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৬৭ রান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর 

টস : প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব

প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব : ১৬৭/৫ (২০ ওভার)
মিঠুন ৫৭*, তামিম ৪৭, সানি জুনিয়র ১৮, বিজয় ১৬
লিখন ২২/১, রাজিবুল ৩০/১

জয়ের জন্য পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাবের প্রয়োজন ১৬৮ রান।



Source link