‘নির্বাচনে পরাজিত হয়ে বিএনপি ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছে’


সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: আন্দোলন ও নির্বাচনে পরাজিত হয়ে বিএনপি এখন প্রতিশোধ নিতে ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, আন্দোলনের নামে সহিংস কোনো পরিস্থিতির সৃষ্টি করা হলে আওয়ামী লীগ রাজপথে সমুচিত জবাব দেবে।

মঙ্গলবার (৮ ‍জুন) সকালে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটি আয়োজিত লকডাউনের আওতাধীন জেলাগুলোর প্রতিনিধিদের মাঝে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

ঘরে বসে লিপ সার্ভিস বন্ধ করে বিএনপিকে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি শুধু মুখেই বলে, বাস্তবে জনগণের জন্য কিছুই করে না।’

আন্দোলন কোনো বছর হবে?- বিএনপির নেতাদের কাছে আন্দোলনের সময় জানতে চেয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দেখতে দেখতে এক যুগ পার হয়ে গেলেও জনগণ তাদের আন্দোলন আর দেখল না।’ যারা নির্বাচন বয়কট করে তারা কখনও গণতন্ত্রে বিশ্বাসী হতে পারে না বলেও মনে করেন তিনি।

বিএনপি সবকিছুতে সরকারের সমালোচনার নামে ‘ধান ভানতে শিবের গীত’ গায় বলেও মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, ‘জনগণ এখন আর এসব বিশ্বাস করে না। বিএনপির চোখ নেই বলেই সরকারের উন্নয়ন দেখতে পায় না।’

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘অবস্থা এমন দাঁড়িয়েছে যে, বজ্রপাতে মানুষের মৃত্যুর জন্য বিএনপি হয়তো সরকারকেই দায়ী করে বসতে পারে।’

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যাবিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, শিক্ষা ও মানবসম্পদ সম্পাদক সামছুন্নাহার চাঁপা, কেন্দ্রীয় কার্যকরী সদস্য সৈয়দ আবদুল আউয়াল শামীম ও সংসদ সদস্য নুরুল আমিন রুহুল। পরে প্রতিনিধিদের মাঝে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

সারাবাংলা/এনআর/পিটিএম





Source link