‘মন্দের ভালো’তেই স্বস্তি খুঁজছেন নির্বাচকরা


‘মন্দের ভালো’তেই স্বস্তি খুঁজছেন নির্বাচকরা

চলছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ, এবার যার ফরম্যাট টি-টোয়েন্টি। ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটে চার-ছক্কার ফুলঝুরি দেখা গেলেও উল্টো চিত্র ডিপিএলে। এখানে ছড়ি ঘুরাচ্ছেন বোলাররাই। আর এজন্য উইকেটই দায়ী বলে মনে করছেন জাতীয় দলের নির্বাচক হাবিবুল বাশার।

দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় এই লিগটি ক্রিকেটারদের উপার্জনেরও বড় এক উৎস। আর তাই ডিপিএলকে ঘিরে দেশের ক্রিকেট অঙ্গনের উৎসুক দৃষ্টি বরাবরই। কিন্তু টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের এবারের লিগে ব্যাটসম্যানদের অসহায়ত্ব চোখে পড়ার মত। বাশার মেনে নিলেন, ব্যাটসম্যানদের জন্য ব্যাটিং বান্ধব উইকেট দিতে পারেননি তারা।

Also Read – একটু কষ্ট করলেই ফিল্ডিং আরও উন্নত করা যায় : বাশার

বিডিক্রিকটাইমকে তিনি বলেন, ‘টি-টোয়েন্টিতে খুনে মেজাজে ব্যাটিং করতে হলে যে ধরনের উইকেট দরকার হয় তা কিন্তু আমরা দিতে পারছি না। এগুলো স্লো উইকেট, বল টার্ন করছে, থেমে যাচ্ছে, এক্ষেত্রে আসলে ১৪০-১৫০ স্ট্রাইক রেটে রান করা কঠিন। এটাই হয়ত ব্যাটসম্যানদের বেশি ভোগাচ্ছে। ভালো হত যদি টি-টোয়েন্টির মানের ফ্ল্যাট ব্যাটিং উইকেট পেতাম, অনেকেই এরকম ইনিংস খেলত। এর মধ্য থেকেও কিন্তু কিছু ইনিংস দেখেছি যেগুলো বিরূপ পরিবেশে ভালো ইনিংসে রূপ নিয়েছে। বোলাররা অবশ্যই ভালো করছে, এমন উইকেটে এটা প্রত্যাশিতই।’

বাশার অবশ্য এও জানালেন, বৃষ্টির এই মৌসুমে ব্যাটিং বান্ধব উইকেট তৈরি করা সহজ কাজ নয়। তাই টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে হলেও এই টুর্নামেন্ট দিয়ে খেলোয়াড়রা মাঠে থাকায় স্বস্তি খুঁজে নিচ্ছেন এই নির্বাচক।

বাশার বলেন, ‘এই মাসে তো অনেক বৃষ্টি হয়। এমন সময়ে একদম ফ্ল্যাট উইকেট পাওয়া একটু কঠিন। তারপরও বসে থাকার চেয়ে খেলা ভালো। যখন বাজে উইকেটে খেলার পর ভালো উইকেটে খেলবেন, তখন ভালো করা অনেক সহজ মনে হবে। খারাপ হোক ভালো হোক- মাঠে খেলা থাকা জরুরী। মাঠে খেলা থাকলে বড় খেলা হলে নিজেদের প্রস্তুত করে নিতে পারব।’



Source link