latest

‘টাকার জন্য ইংরেজরা ভারতের পিছু পিছু ঘোরে’


‘টাকার জন্য ইংরেজরা ভারতের পিছু পিছু ঘোরে’

প্রায় ২০০ বছর ব্রিটিশ শাসনের যাঁতাকলে পিষ্ট হতে হয়েছিল ভারতীয় উপমহাদেশকে। নিজেদের সুবিধামতো ব্রিটিশরা এই উপমহাদেশ ও মানুষদেরকে অপব্যবহার করেছিল। তারা এই এলাকা ছেড়ে চলে যাওয়ার পরেও তাদের পরবর্তী প্রজন্ম ভারতীয়দের হীন চোখেই দেখে। ক্রিকেটাররাও তার ব্যতিক্রম ছিলেন না। কিন্তু ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আসার পরেই পরিস্থিতি বদলে গিয়েছে বলে দাবি ফারুক ইঞ্জিনিয়ারের।

'টাকার জন্য ইংরেজরা ভারতের পিছু পিছু ঘোরে'
ফারুক ইঞ্জিনিয়ার

ইংরেজ শাসকদের মতোই ইংল্যান্ডের অনেক ক্রিকেটাররাও ভারতীয়দের হীন চোখে দেখে বলে অভিযোগ করেন ফারুক। এই সাবেক ভারতীয় ব্যাটসম্যান জানান, সাবেক ইংলিশ ক্রিকেটার জিওফ বয়কট ভারতীয়দের ব্যাপারে কথা বললেই সবসময় বলতেন, ‘ব্লাডি ইন্ডিয়ান’। কাউন্টি ক্রিকেটের ক্রিকেটাররাও ভারতীয়দের সাথে বর্ণবাদী আচরণ করতেন। ফারুকের দাবি সেই পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটেছে কেবল টাকার লোভে।

আইপিএলে অংশ নেওয়া বিদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে একটি বড় অংশ আসে ইংল্যান্ড থেকে। অস্ট্রেলিয়া থেকেও অনেক ক্রিকেটার অংশ নেন। ফারুক সরাসরিই বলেন, যেই ইংলিশরা আগে ভারতীয় হীন চোখে দেখত, তারাই এখন কেবলই টাকার লোভে ভারতীয়দের পিছু পিছু ঘোরে।

Also Read – অবিশ্বাস্য বোলিংয়ের পর রশিদের ক্যামিও, শেষ বলে লাহোরের রুদ্ধশ্বাস জয়

ফারুকের ভাষায়, ‘আমার মতো যারা আছে, তারা জানে যে ওদের (ইংরেজ) আসল রূপটা কী ছিল। এখন হঠাৎ করেই আচরণ পরিবর্তন হয়েছে। ভারত এখন ওদের কাছে এমন একটা দেশ, যেখানে এসে আইপিএলের সময়ে কয়েক মাস ধরে টিভিতে কাজ করা যায় বা খেলা যায়।’

তিনি আরও বলেন, ‘কয়েক বছর আগেও আমরা সবাই ওদের কাছে ব্লাডি ইন্ডিয়ানস ছিলাম। আইপিএল শুরু হওয়ার পর থেকে ব্যাপারটা বদলে গেল। এখন ওরা আমাদের তোয়াজ করে চলছে। আমার খুব অবাক লাগে, শুধু টাকার জন্য ওরা এখন আমাদের পিছু পিছু ঘোরে।’

প্রসঙ্গত, মুসলিম ও এশিয়ানদের নিয়ে ইংলিশ ক্রিকেটার ওলি রবিনসনের ভাইরাল হওয়া টুইট বার্তা নিয়ে কথা বলার সময় এসব মন্তব্য করেন ফারুক। ইংল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের রবিনসনের পক্ষে কথা বলা নিয়েও সমালোচনা করেই সাবেক এই ভারতীয় ক্রিকেটার।



Source link