ঝুঁকিতেই আছেন খালেদা: ফখরুল


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: পোস্ট কোভিড থেকে মুক্ত হলেও পুরনো রোগের জটিলতায় স্বাস্থ্য ঝুঁকিতেই আছেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

শুক্রবার (১১ জুন) গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন এ তথ্য জানান দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, ‘ম্যাডামের মেডিকেল বোর্ডের সর্বশেষ বক্তব্য হচ্ছে, উনার মিনিমাম যে প্যারামিটারগুলো আছে পোস্ট কোভিডের থেকে উনি মোটামুটি বেটার। ফান্ডামেন্টাল কিছু সমস্যা রয়েছে, যে সমস্যগুলো উদ্বেগজনক। তার হার্টের প্রবলেম একুয়েট আছে, কিডনির প্রবলেম একুয়েট আছে। এই দুইটি নিয়ে মেডিকেল বোর্ড উদ্বিগ্ন। উনারা মনে করছেন যে, বাংলাদেশে যে হাসপাতালগুলো আছে, এডভান্স সেন্টারগুলো আছে, সেগুলো যথেষ্ট নয় উনার (খালেদা জিয়া) টিট্রমেন্টের জন্য।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিশেষজ্ঞরা বারবার বলছেন যে, উনার (খালেদা জিয়া) এডভান্স টিট্রমেন্ট দরকার, তার অসুখগুলো নিয়ে এডভান্স সেন্টারে যাওয়া জরুরি। আমরা সেটা বার বার বলছি।’

খালেদা জিয়ার এই বিষয়গুলো নিয়ে জামিনের জন্য আদালতে যাবেন কি না?— এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘এরকম প্রশ্নের উত্তর আমরা দিয়েছি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমাদের সবচেয়ে বড় ক্ষতিটা হয়েছে আদালতে। একেবারে রাজনীতি থেকে শুরু করে আইনগত ক্ষতিগুলো আদালতেই হয়েছে।’

‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিধান বাতিল করেছে আদালত, তারপর যে সমস্ত আইন করেছে তা আদালত করেছে। আর ম্যাডাম খালেদা জিয়ার প্রতি যদি কেউ চরম অন্যায় করে থাকে তাহলে আদালত করেছে। কোনো আইনেই কোনোভাবেই তার সাজা হতে পারে না এবং তা বর্ধিত করা যেতে পারে না। ওই জায়গায় আদালতের প্রতি আমাদের আস্থাটা কতটুকু, সেটা বুঝে ধীরে সুস্থে চিন্তাভাবনা করে আদালতে যেত হবে’— বলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সংবাদ সম্মেলন অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বরচন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ফজলুর রহমান, কেন্দ্রীয় নেতা মাসুদ আহমেদ তালকুদার, কায়সার কামাল প্রমুখ।

সারাবাংলা/এজেড/এসএসএ





Source link